BREAKING NEWS

১৭  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

ঐশ্বর্যকে নিয়ে নিম্নরুচির মিম রিটুইট, বিবেককে নোটিস পাঠাল জাতীয় মহিলা কমিশন

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 21, 2019 10:22 am|    Updated: May 21, 2019 10:24 am

NCW serves notice to Vivek Oberoi over 'disgusting' poll meme

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঐশ্বর্য রাই বচ্চনকে নিয়ে মিম শেয়ার করে বিপাকে পড়লেন বিবেক ওবেরয়। জাতীয় মহিলা কমিশনের নজরে
আসার পরই অভিযোগ আনা হয় তাঁর বিরুদ্ধে। বিবেকের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলা হয়। ইতিমধ্যেই নোটিস পাঠানো হয়েছে অভিনেতাকে। ঐশ্বর্যর ভক্তরা তো বটেই, বলিউডে বিবেকের সহকর্মীরাও খোদ তীব্র সমালোচনা শুরু করেন। সোনমের পাশাপাশি মধুর ভান্ডারকরের মতো পরিচালক, এমনকী জ্বালা গুট্টার মতো ব্যাডমিন্টন তারকাও বিবেকের ওই পোস্টটিকে হতাশাজনক বলে আখ্যা দেন।

[আরও পড়ুন:  এক্সিট পোলের মজাদার মিম পোস্ট করে হাসির খোরাক বিবেক ওবেরয় ]

“ডিসগাস্টিং অ্যান্ড ক্লাসলেস..” মন্তব্যটা ছিটকে এল বিবেকের রিটুইটকে লক্ষ্য করে। বললেন সোনম কাপুর। প্রসঙ্গত, মিমে এক্সিট পোলের প্রসঙ্গ টেনে নিম্নরুচির আক্রমণ করা হয়েছে প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বর্য রাই বচ্চনকে। আর ওই মিম নিয়ে সোমবার সকাল থেকেই সরগরম ওয়েব দুনিয়া। ছবিটির তিনটি ভাগ। ওপিনিয়ন পোল অর্থাৎ জনমত সমীক্ষা। এক্সিট পোল অর্থাৎ বুথ ফেরৎ সমীক্ষা এবং রেজাল্ট অর্থাৎ চূড়ান্ত ফলাফল। এই তিনটি ভাগে ব্যবহার করা হয়েছে ঐশ্বর্যর জীবনের তিনটি সময়ের ছবি– জনমত সমীক্ষায় সলমন খানের সঙ্গে ঐশ্বর্য। বুথফেরত সমীক্ষায় বিবেক ওবেরয়ের সঙ্গে। আর চূড়ান্ত ফলাফলের জায়গাটিতে ঐশ্বর্য-অভিষেক আর আরাধ্যার হাসিখুশি ছবি। টুইটারে বিবেক ওবেরয় রিটুইট করেন ছবিটি। ক্যাপশনে লেখেন, “হাহা! বেশ ভাল ভাবনা। কোনও রাজনৈতিক বিষয় নয়। স্রেফ জীবন।” আর এই ছবি টুইটারের টাইমলাইনে পৌঁছাতে না পৌঁছাতেই তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হন বিবেক ওবেরয়। সমালোচনা করার জন্য সোনম কাপুরকেও এক হাত নিয়েছেন বিবেক।

[আরও পড়ুন:  কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় ফের আইনি নোটিস সোনালি-সইফ-টাবুকে]

কেউ লেখেন, ‘‘তোমাকে ছেড়ে অভিষেককে বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্তে যে ঐশ্বর্য একদম সঠিক ছিলেন, তা প্রমাণ করে দিলেন।” কেউ আবার সলমন খানের সঙ্গে বিবেকের তিক্ত সম্পর্কের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, “সলমন খান যে তোমার কেরিয়ারটাকে সঠিক কারণেই শেষ করে দিয়েছেন, সে ব্যাপারে আর কোনও সন্দেহ রইল না।” আবার অনেকেই বিবেকের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জীবনীচিত্র করার প্রসঙ্গে টেনে বলেন, “এমন ব্যক্তিই তো নরেন্দ্র মোদির জীবনীচিত্রে অভিনয় করার জন্য সবচেয়ে যোগ্য অভিনেতা। এতে তো অবাক হওয়ার কিছু নেই।” নেটিজেনদের একটি বড় অংশ আবার বললছেন, “একদিকে সুদূর ফ্রান্সের কান চলচ্চিত্র উৎসবের রেড কার্পেটে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন। অন্যদিকে তাঁর নিজের দেশে, তাঁরই প্রাক্তন সহকর্মী টুইটারে ট্রোল করছেন তাঁকে। এমনকী সেখানে আরাধ্যার মতো বাচ্চাকেও রেয়াত করা হয়নি।”

যদিও এপ্রসঙ্গে বিবেককে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “এ নিয়ে এত প্রতিক্রিয়া জানানোর কোনও কারণ তো খুঁজে পাচ্ছি না। আমাকে কেউ ব্যঙ্গচিত্রটি পাঠিয়েছিল। ভাল লাগে। তাই শেয়ার করেছি। বিষয়টিকে ব্যক্তিগতভাবে নেওয়ার মতো কিছু তো হয়নি!” তাঁর ক্ষমা চাওয়ার দাবি উঠলে বিবেক বলেন, “আমি ক্ষমা চাইতে রাজি আছি, কিন্তু কী জন্য চাইব? কী ভুল করেছি আমি?”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে