BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মাত্র চারদিনেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে নজির গড়ল ‘পদ্মাবত’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 29, 2018 8:54 am|    Updated: September 17, 2019 2:41 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র চারদিন। মুক্তির মাত্র চারদিনের মধ্যেই ১০০ কোটির মাইলস্টোন ছুঁয়ে ফেলল ‘পদ্মাবত’। দেশের চারটি রাজ্যের মাল্টিপ্লেক্স জানিয়ে দিয়েছিল ছবিটি তারা দেখাবে না। এছাড়াও একাধিক রাজ্যের প্রেক্ষাগৃহের মালিকরা ছবিটি দেখানোর সাহস জোটাতে পারেননি। এত বাধা-বিপত্তি পেরিয়েও সাফল্যের শিখর ছুঁয়েই ফেলল সঞ্জয় লীলা বনশালির স্বপ্নের প্রজেক্ট।

[তেলুগু সিনেমায় আগ্রহ নেই তমন্নার! ‘বাহুবলী’র নায়িকাকে জুতো ছুড়ে ‘শাস্তি’]

সিনেমা যাঁরা দেখেছেন সকলেই মেনেছেন, এ ছবিতে কোনওভাবেই রাজপুত মর্যাদা ক্ষুন্ন করা হয়নি। রানি পদ্মাবতী ও আলাউদ্দিন খিলজির মধ্যে প্রেম তো দূর অস্ত, পদ্মাবতীর প্রতিচ্ছবি দেখার বিষয়টিও খুবই সতর্কভাবে দেখিয়েছেন পরিচালক। এরপরও কর্ণি সেনা তাণ্ডব অব্যাহত রেখেছে। প্রেক্ষাগৃহে ভাঙচুর, আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটছে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ পর্যন্ত মানতে নারাজ স্বঘোষিত সংগঠন। তবে গায়ের জোর নয় দর্শকদের ভালবাসাতেই ন্যায়-অন্যায়ের এ যুদ্ধে জয় লাভ করল দীপিকা-শাহিদ-রণবীরের এ ছবি। মুক্তির আগেই তা ‘পেড প্রিভিউ’-র মাধ্যমে পাঁচ কোটি টাকা কামিয়ে নেয়। আর মুক্তির দু’দিনের মধ্যেই আয় করে ফেলে ৫০ কোটি টাকা। সূত্র মারফত খবর, বৃহস্পতিবার ছবির আয় ছিল প্রায় ১৯ কোটি। শুক্রবার তা বেড়ে হয় প্রায় ৩২ কোটি। শনিবার আবার একটু কমে যায়। তবুও দিনের শেষে অন্তত ২৭ কোটি টাকা কামিয়ে ফেলে ‘পদ্মাবত’।  এরপর একশো কোটির ক্লাবে ঢুকে পড়াটা ছিল কেবল সময়ের অপেক্ষা। নজর ছিল রবিবারের ব্যবসায়। জানা গিয়েছে, রবিবার প্রায় ৩০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে সঞ্জয়ের ছবি। আর সেই সৌজন্যেই ছবির মোট আয়ের পরিমাণ প্রায় ১১৩ কোটি। কেবল ভারতে নয় আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, নিউজিল্যান্ড ও ফিজিতেও বেশ ভালভাবেই চলছে ‘পদ্মাবত’।  সে খতিয়ান দিয়েছেন সিনে-বিশেষজ্ঞ তরণ আদর্শ।

[সিনেমায় পা রাখছেন শাহরুখ-পুত্র? কী পোস্ট করলেন গৌরী?]

এদিকে যে সূরজ পাল আমু দেশের শীর্ষ আদালতের নির্দেশ অগ্রাহ্য করেই ছবির বিরুদ্ধে একের পর এক হুঙ্কার দিয়ে চলেছিলেন। নায়িকা দীপিকার মাথা কেটে নিলে ১০ কোটি টাকার পুরস্কার দেওয়ার কথা বলেছিলেন। আর পরোক্ষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থা শূর্পণখার মতো করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। গুরুগ্রাম পুলিশের হেপাজতে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবারই বিজেপি নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। শোনা গিয়েছে, পুলিশের জেরা চলাকালীন নাকি অসুস্থ বোধ করেন তিনি। চিকিৎসক ডাকতে হয়। আপাতত অবস্থা স্থিতিশীল বলেই জানা গিয়েছে। সোমবারই হরিয়ানা আদালতে তাঁকে পেশ করার কথা। স্বাভাবিক হচ্ছে দেশের পরিস্থিতিও। আর ধোপে টিকছে না বিক্ষোভকারীদের ঠুনকো আন্দোলন, এমনটাই অভিমত বিশেষজ্ঞদের।

[বিয়ের পরও ভাটা নেই আবেদনে, বিকিনিতে গোয়ার বিচে উষ্ণতা ছড়ালেন রিয়া]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement