BREAKING NEWS

১৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

হাতিয়ার সৌমিত্র-অপর্ণাদের বক্তব্য, ‘সংবিধান বাঁচাও’ কর্মসূচিতে পথে বাম-কংগ্রেস

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 26, 2020 6:27 pm|    Updated: January 26, 2020 8:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতাকে হাতিয়ার করে সাধারণতন্ত্র দিবসে দেশ জুড়ে ‘সংবিধান বাঁচাও’ কর্মসূচি পালন করল বামপন্থী নেতৃত্ব। সংবিধানের প্রস্তাবনা পাঠ করলেন বিশিষ্টজনেরা। ‘সিটিজেন্স স্পিক ইন্ডিয়া’-র তরফে প্রকাশিত সেই ভিডিও প্রচারিত হল সোশ্যাল মিডিয়ায় বামপন্থী গ্রুপগুলিতে। অপর্ণা সেন থেকে শুরু করে ঋদ্ধি বন্দ্যোপাধ্যায় – নানা প্রজন্মের বিশিষ্টজনরা পাঠ করলেন সংবিধানের প্রস্তাবনার একেকটি কথা। বার্তা দিলেন, সংবিধানকে রক্ষা করার।

[আরও পড়ুন: সংঘাতের মাঝেই অন্য ছবি, রেড রোডের কুচকাওয়াজে খোশগল্প রাজ্যপাল-মুখ্যমন্ত্রীর]

রবিবার কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী, দেশের সর্বত্র পালিত হয়েছে মানববন্ধন কর্মসূচি। এরাজ্যে বামপন্থীদের কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছে কংগ্রেসও। সকাল সাড়ে দশটা থেকে সব জায়গায় শুরু হয় অনুষ্ঠান। ঘন্টাখানেক ধরে তা চলে। এন্টালিতে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু এবং ঢাকুরিয়াতে রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রর নেতৃত্বে মানববন্ধন করেন সিপিএম নেতা, কর্মী, সমর্থকরা। সেখান থেকে একটাই বার্তা দিলেন সকলে।

manabbandhan

তাঁদের মতে, CAA’র কাজ সংবিধান বিরোধী। তাই এই মুহূর্তে দেশের সংবিধান বিপন্ন। তাকে বাঁচাতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার অঙ্গীকার নিয়েই এদিনের মানববন্ধন। ১৭টি বামপন্থী দলের এই যৌথ কর্মসূচিতে যোগ দিতে দেখা গেল কংগ্রেসকেও। এন্টালিতে বিমান বসুর সঙ্গে ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্রও। অনুষ্ঠান চলল জেলার ব্লক স্তরেও।

[আরও পড়ুন: মোদি-ভক্তির পুরস্কার! কঙ্গনা-একতা-আদনানদের ‘পদ্মশ্রী’ নিয়ে জোর বিতর্ক নেটদুনিয়ায়]

পথে নেমে সিপিএমের কর্মসূচির পাশাপাশি দিনভর সোশ্যাল মিডিয়াতেও ভাইরাল বিশিষ্টজনদের বক্তব্য। এবং তা হাতিয়ার করলেন বামপন্থীরা। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন, অঞ্জন দত্ত, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়, ঋদ্ধি সেন, অনুপম রায়, জয়ন্ত কৃপালনিরা একে একে পড়লেন সংবিধানের প্রস্তাবনাগুলি। আজকের দিনকে সামনে রেখেই প্রকাশিত এই ভিডিও-র মধ্যে দিয়ে তাঁরাও আমজনতাকে বোঝালেন, সংবিধান রক্ষা নাগরিকের প্রকৃত দায়িত্ব। এমন সংকটের সময় একমাত্র সংবিধানকে শপথগুলিকে হাতিয়ার করেই সুদিন ফিরতে পারে বলে বার্তা দিলেন তাঁরা।

An Images
An Images
An Images An Images