৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপিতে যোগ দিয়েই বিস্ফোরক রিমঝিম মিত্র। চাপের মুখে পড়েই নাকি রাজনৈতিক দলের অনুষ্ঠান তথা মঞ্চে মুখ দেখাতে হয় তাঁদের। রবিবার, ২১ জুলাই ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়ে এমনটাই মন্তব্য করেন টেলিভিশনের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

[আরও পড়ুন:  দেশকে কেন কলুষিত করছেন? মোদিকে কটাক্ষ করে গ্রেপ্তার ‘বিগ বস’ খ্যাত আজাজ খান]

ঠিক কী বললেন রিমঝিম? তিনি বলেন, “টলিউডে ভীষণভাবে মনোপলি অর্থাৎ একচেটিয়াবাদ কাজ করে। এই প্রথম কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত হলাম।” তারকাদের কি কোনও চাপের মুখে পড়ে রাজনৈতিক মঞ্চে মুখ দেখাতে হয়? এই প্রশ্ন অভিনেত্রী রিমঝিমকে ছুঁড়তেই তিনি মন্তব্য করেন, “হ্যাঁ অবশ্যই। অনেক সময়েই এরকম হয় যে, কোনও দলের অনুষ্ঠানে মুখ দেখালে সেসব তারকাদের উপর তকমা সাঁটিয়ে দেওয়া হয় যে, তাঁরা অমুক রাজনৈতিক দলের ঝান্ডাধারী কিংবা ওই রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত বা সংশ্লিষ্ট দলকে সমর্থন করেন। কিন্তু আমাদের কখনও জিজ্ঞেস করে দেখা হয়েছে কি যে আমরা কী চাইছি? কিংবা আমরা আদৌ সেই দলের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে নিজেদের নাম জড়াতে চাইছি কি না! অনেকেই শাসকদলের চাপের মুখে পড়ে কোনও অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাধ্য হন। বা বলা ভাল, সেই মঞ্চে মুখ দেখাতে বাধ্য হন।”

[আরও পড়ুন: আরও বিপাকে আজাজ খান, এবার অভিযোগ দায়ের ‘বিগ বস’ খ্যাত পায়েল রোহাতগির]

তা তিনিও কি চাপের মুখে পড়েই বিজেপিতে যোগ দিলেন? রিমঝিমের সাফ মন্তব্য, “না, আমি স্বেচ্ছায় যোগ দিয়েছি ভারতীয় জনতা পার্টিতে। কারণ, আমি মোদিজির আদর্শে বিশ্বাসী। আর সেই আদর্শে হেঁটেই সমূহ বাংলার মানুষদের পাশে থাকতে চাইছি। এবং আমার ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুদের যেসব সমস্যা হচ্ছে সেই দিকগুলিও দেখব।” পাশাপাশি তিনি এও বলেন, “বিজেপি দল যদি মনে করে যে আমি বাংলার মানুষের কাজ করার যোগ্য কিংবা দলের কাজ করার সামর্থ আমার মধ্যে রয়েছে, তাহলে তাঁরা নিশ্চয় আমাকে কাজ করার সুযোগ দেবেন।” প্রসঙ্গত, কোনও দিনই টেলিপর্দার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীকে সক্রিয়ভাবে রাজনীতির ময়দানে দেখা যায়নি। এইপ্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়া শিবিরে সদস্য হিসেবে নাম লেখালেন রিমঝিম। কিন্তু অভিনয়ের পাশাপাশি হঠাৎ কেন রাজনীতির ময়দানে নামলেন রিমঝিম? উত্তরে তিনি বলেন, “কোণঠাসা হয়ে যাচ্ছিলাম। ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক রকম সমস্যা চলছে। তাই মনে হল, এটাই সঠিক সময় রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার।”  

ছবি: প্রবীর বন্দ্যোপাধ্যায়

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং