২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

দুই চ্যানেলেই কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়ের গল্প, সম্মুখ সমরে স্টার জলসা ও জি বাংলা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: February 26, 2020 1:28 pm|    Updated: February 26, 2020 4:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কিছুদিন আগে ‘কাদম্বিনী‘ নাম নিয়ে লড়াই চলছিল দুই চ্যানেলে। এবার লড়াই শুরু গল্প নিয়ে। ভারতের প্রথম মহিলা চিকিৎসক কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়কে নিয়ে ধারাবাহিকের কথা আগেই জানিয়েছিল জি বাংলা। তবে তখন স্টার জলসার তরফে কিছু জানানো হয়নি। এবার যখন তারা ছবির প্রোমো প্রকাশ করল, তখন দেখা গেল এখানেও কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়ের গল্পই দেখানো হবে। তবে নাম নিয়ে ধন্দ আপাতত কেটেছে। কারণ ‘কাদম্বিনী’ নাম বদলে স্টার জলসা কর্তৃপক্ষ ধারাবাহিকের নাম বদলে রেখেছে ‘প্রথমা কাদম্বিনী’।

১৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধেবেলা স্টার জলসার ফেসবুক পাতায় একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। সেখানে শুধু জানানো হয় ‘কাদম্বিনী’ নামের একটি ধারাবাহিক আসতে চলেছে। ঠিক তারপরই জি বাংলার ফেসবুক পাতায় পোস্ট করা হয় ‘কাদম্বিনী’র প্রোমো। আর এরপরই ধন্দে পড়ে দর্শক। অনেকে তো প্রশ্নই করে বসেন, আসলে কোন চ্যানেলে আসছে ধারাবাহিকটি। কিন্তু তারপর জানা যায়, দুই চ্যানেলেই একই নামের ধারাবাহিক আসতে চলেছে। স্টার জলসার ধারাবাহিকটি একটি পিরিয়ড ড্রামা। তবে কবেকার গল্প পর্দায় তুলে ধরা হবে, তা নিয়ে কিছু জানানো হয়নি। তবে সম্প্রতি জানা গিয়েছে স্টার জলসাতেও আসছে কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়ের বায়োপিক। তবে এই চ্যানেলে কাদম্বিনীর ছেলেবেলা থেকে শুরু হবে গল্প। প্রোমোতেও সেই আভাস মিলেছে।

[ আরও পড়ুন: অপরাধীদের চিনিয়ে দিতে শুরু হল ‘বেঙ্গল ক্রাইম’, সঞ্চালনায় অভিনেতা রাজেশ শর্মা ]

দেখা গিয়েছে কোনও এক বনেদি বাড়ির বিধবা বৃদ্ধা অসুস্থ। কিন্তু সাহেব ডাক্তারকে দেখাতে সে কিছুতেই রাজি নয়। যদি মহিলা চিকিৎসক পাওয়া যায়, তবেই তিনি দেখাবেন। কিন্তু এ তো আর বিলেত নয়, এখানে মহিলা চিকিৎসক পাওয়া অসম্ভব। তাই ছোট্ট কাদম্বিনী ঠিক করে সে বড় হয়ে চিকিৎসক হবে। প্রোমোয় এই গল্পই দেখানো হয়েছে। পাশাপাশি ধারাবাহিকের নামও বদলে দেওয়া হয়েছে। ‘কাদম্বিনী’ থেকে ‘প্রথম কাদম্বিনী’ হয়েছে ধারাবাহিকের নাম। এখানে কাদম্বিনীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন সোলাঙ্কি রায়।

১৮৮৩ সালে, যখন বাঙালি মেয়েদের পড়াশোনা ছিল চাঁদে হাত বাড়ানোর মতো বিষয়, তখন কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায় ও চন্দ্রমুখী বসু গ্র্যাজুয়েট হন। তাঁরাই ছিলেন ভারতের প্রথম দুই মহিলা গ্র্যাজুয়েট। এর দু’বছর পর চিকিৎসাশাস্ত্রে স্নাতক হন কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়। বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ থেকে ডিগ্রি নেন তিনি। তারপর বিদেশে পাড়ি দেন। ১৮৯২ সালে দেশে ফিরে ডাক্তার হিসেবে প্র্যাকটিস শুরু করেন তিনি।

[ আরও পড়ুন: ‘মেলভিনের জন্য গর্ভবতী হয়েছিল এক নাবালিকা’, প্রাক্তন প্রেমিকের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক সানা ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement