৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাথমিক স্কুলে মিড ডে মিলের খিচুড়ি রাধেন। তিনিই কি না ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র মঞ্চে গিয়ে হয়ে গেলেন কোটিপতি! ভাগ্যচক্র কখন যে কার উপর সহায় হয়, এই মানুষগুলিই বোধহয় তার জলন্ত দৃষ্টান্ত। ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র মঞ্চে পর পর দু’জন কোটিপতি হলেন। গত সপ্তাহেই বিহারের সানোজ রাজ জিতেছিলেন এক কোটি টাকা। এবার জিতলেন অমরাবতীর এক অখ্যাত মহিলা। 

[আরও পড়ুন: বিচারক রবিনা ও সঞ্চালক মনীশের মধ্যে ঝগড়া, বন্ধ ‘নাচ বলিয়ে ৯’-এর শুটিং!]

চলতি সিজনে আরও এক ‘কোটিপতি’পেয়ে গেল ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় গেম শো ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’। যিনি আর কেউ নন, মহারাষ্ট্রের অমরাবতীর বাসিন্দা অখ‌্যাত এক মহিলা। গ্রামের সরকারি স্কুলে ৪৫০ জন বাচ্চার মিড ডে মিল রাঁধতে রাঁধতেই ববিতা তাড়ে পৌঁছে গেলেন দেশের সবচেয়ে বড় গেম শো ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র আসরে! খিচুড়ি রেঁধে যাঁর মাসিক আয় ছিল মেরেকেটে দেড় হাজার টাকা, তিনিই জিতে নিলেন এক কোটি টাকা! স্কুলের বাচ্চাদের কাছে অবশ্য ববিতা আরও এক নামে পরিচিত। সেটা হল ‘খিচুড়ি আন্টি’।

অমিতাভ বচ্চনের সঞ্চালনায় কেবিসি গেম শো দেশের অন্যতম জনপ্রিয় এবং দামি গেম শো’গুলির মধ্যে একটি। এবার সেই শোয়ের একাদশ মরশুম চলছে। সংশ্লিষ্ট চ‌্যানেলের তরফে প্রকাশিত প্রোমোতে ইতিমধ্যেই দেখা গিয়েছে ‘কোটিপতি’ হয়েছেন ববিতা তাড়ে। যিনি বলেছেন, তাঁর কাজের জন‌্য তিনি গর্বিত। রাঁধতে ভালবাসেন। “পেটের খিদে মেটানোর জন্য কোনও কাজই ছোট-বড় নয়”, বলছেন ববিতা। 

[আরও পড়ুন: লোভ দেখিয়ে তরুণীদের আটকে রাখতেন ছোটপর্দার এই অভিনেত্রী, চলত যৌন অত্যাচারও]

শোয়ের মাঝেই ববিতা জানান বহুদিন ধরেই তাঁর একটি মোবাইল ফোনের শখ রয়েছে। শখের থেকেও বড় কথা দরকার। কারণ, তাঁর পরিবারে একটিমাত্র মোবাইলই রয়েছে। আর কেবিসি’র মঞ্চেই তা পূরণ করে দিলেন সঞ্চালক অমিতাভ বচ্চন। ববিতার হাতে তুলে দেন একটি মোবাইল। তবে এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য, কোটিপতি হয়েও চাকরি ছাড়ার কোনও বাসনা নেই তাঁর। রয়ে যেতে চান বাচ্চাদের প্রিয় সেই খিচুড়ি আন্টি হিসেবেই। ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র ববিতার পর্বটি দেখা যাবে বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত ৯টায়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং