Advertisement
Advertisement
ঘোড়া কেনাবেচা

সাত বিধায়ককে ৭০ কোটি টাকা দিয়ে কিনতে চেয়েছে বিজেপি, অভিযোগ আপ-এর

উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা করছে আপ, অভিযোগ বিজেপির।

7 Lawmakers
Published by: Soumya Mukherjee
  • Posted:May 1, 2019 8:21 pm
  • Updated:May 1, 2019 8:21 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃণমূল কংগ্রেসের পর বিজেপির বিরুদ্ধে এবার বিধায়ক কেনাবেচার অভিযোগ আনা হল আম আদমি পার্টির তরফেও। বুধবার টুইট করে তাদের সাতজন বিধায়ককে বিজেপি ৭০ কোটি টাকা দিয়ে কিনতে চাইছে বলে অভিযোগ জানালেন দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিশোদিয়া। তাঁর অভিযোগ, আমাদের সাতজন বিধায়কের সঙ্গে যোগাযোগ করে দল বদলানোর প্রস্তাব দিয়েছে বিজেপি। এর জন্য তাঁদের প্রত্যেককে ১০ কোটি টাকা করে মোট ৭০ কোটি টাকা দেওয়ার টোপও দিয়েছে। বিজেপিকে আমি বলতে চাই, ঘোড়া কেনাবেচা না করে ইস্যুর ভিত্তিতে নির্বাচনে লড়াই করুক তারা।

[আরও পড়ুন- বাতিল মনোনয়ন, মোদির বিরুদ্ধে লড়তে পারছেন না তেজ বাহাদুর]

যদিও আপ-এর এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে বিজেপির তরফে। এপ্রসঙ্গে দিল্লি বিজেপির মিডিয়া প্রধান অশোক গোয়েল বলেন, “নির্বাচনের সময় অযথা উত্তেজনা তৈরি করে সুবিধা নিতে চাইছে আপ। কারণ, তারা জেনে গিয়েছে যে এই নির্বাচনে হেরে যাবে। তাই মিথ্যে ও ভুলভাল মন্তব্য করে মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করছে।”

Advertisement

[আরও পড়ুন- মোদির ‘বন্দে মাতরম’ স্লোগানে নীরব নীতীশ, সমালোচনা বিরোধীদের]

গত সোমবার পশ্চিমবঙ্গে সভা করতে এসে তৃণমূল কংগ্রেসের ৪০ জন বিধায়ক তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে বলে মন্তব্য করেছিলেন নরেন্দ্র মোদি। এরপরই নির্বাচন কমিশনে তাঁর বিরুদ্ধে ঘোড়া কেনাবেচার অভিযোগ করে তৃণমূল। তাদের পাশে দাঁড়িয়ে কমিশনে অভিযোগ করেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডুও। তাঁদের থেকে একধাপ এগিয়ে সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব বলেন, “এই মন্তব্যের জন্য নরেন্দ্র মোদিকে ৭২ ঘণ্টা নয়, ৭২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করা উচিত। দেশের ১২৫ কোটি মানুষের বিশ্বাস হারিয়ে ফেলে এখন এই রাস্তাই বেছে নিয়েছেন মোদি।”

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ