BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউন ভাঙার জের, উত্তরপ্রদেশে গ্রেপ্তার অধ্যাপক-সহ ৩০ জন তবলিঘি জামাত সদস্য

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 21, 2020 3:47 pm|    Updated: April 21, 2020 3:47 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের নিয়ম ভাঙার পাশাপাশি বিদেশ ভ্রমণের ইতিহাস প্রশাসনের থেকে লুকিয়ে রেখেছিল। দিল্লির নিজামুদ্দিনে আয়োজিত ধর্মীয় সমাবেশে যোগ দিয়েছিল। এবং সেখানে আসা ১৬ বিদেশি-সহ কয়েকজন তবলিঘি জামাতের সদস্যকে উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগরাজের দুটি মসজিদ লুকিয়ে থাকতে সাহায্য করেছিল। এই অভিযোগে এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয় (Allahabad University) -এর এক অধ্যাপক মহম্মদ শাহিদকে গ্রেপ্তার করল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তার পাশাপাশি ১৬ জন বিদেশি-সহ মোট ২৯ জনকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিদেশি জামাত সদস্যদের লুকিয়ে রাখার কাজে তাকে সাহায্য করার জন্য গ্রেপ্তার হয়েছে প্রয়াগরাজের শাহগঞ্জ এলাকার আবদুল্লা মসজিদ ও কারেলির হিরা মসজিদের কেয়ারটেকারও।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, মহম্মদ শাহিদ নাম ওই অধ্যাপক দিল্লির নিজামুদ্দিনে আয়োজিত ৬ মার্চ থেকে ১০ মার্চের সমাবেশে হাজিরও ছিল। কিন্তু, সেই খবর পুলিশকে জানায়নি। উলটে গত ৯ এপ্রিল থেকে কারেলির একটি গেস্টহাউসে গোটা পরিবার নিয়ে কোয়ারেন্টাইনে চলে গিয়েছিল। এমনকী ১৬ জন বিদেশি-সহ বেশ কয়েকজন তবলিঘি জামাতের সদস্যকে পুলিশের অগোচরেই দুটি মসজিদে লুকিয়ে রেখেছিল। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরেই উত্তরপ্রদেশের শিবকুঠি পুলিশ স্টেশন তার নামে ভ্রমণের ইতিহাস লুকোনোর অভিযোগে একটি এফআইআর দায়ের হয়। আর তার ভিত্তিতে তদন্ত চালানোর পর তবলিঘি জামাতের সদস্যদের লুকিয়ে রাখার বিষয়টিও জানা যায়। এর ভিত্তিতে কোয়ারেন্টাইনের সময়সীমা পার হওয়ার পরেই সোমবার রাতে ওই অ্ধ্যাপক-সহ ৩০ জনকে গ্রেপ্তার করা হল।

[আরও পড়ুন: বড়লোকের স্যানিটাইজারের জন্য গরিবের ভাত মারার পরিকল্পনা! কেন্দ্রকে বিঁধলেন রাহুল ]

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃত তবলিঘি জামাত সদস্যের মধ্যে সাতজন ইন্দোনেশিয়া ও নজন থাইল্যান্ডের নাগরিক। আর বাকি দুজনের মধ্যে একজন কেরল ও অন্যজন পশ্চিমবঙ্গের। বাকি ১১ জন নিজামুদ্দিনের সমাবেশে যোগ না দিলেও এই ১৮ জনকে লুকিয়ে রাখার কাজে এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ওই অধ্যাপককে সাহায্য করেছিল। ওই বিদেশি নাগরিকরা পর্যটক ভিসায় ভারতে এসে ধর্মীয় সমাবেশে অংশ নিয়েছিল। তারপর নিয়ম ভেঙে মসজিদে লুকিয়ে ছিল।

[আরও পড়ুন: ‘মৃত স্বাস্থ্যকর্মীরা শহিদের সম্মান পাবেন’, ঘোষণা ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement