BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দেশে করোনা সংক্রমণ কি শিখরে পৌঁছেছে? জানুন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর জবাব

Published by: Biswadip Dey |    Posted: September 21, 2020 1:25 pm|    Updated: September 21, 2020 1:26 pm

Bengali News: 'India at multiple trajectories', says Harsh Vardhan on Coronavirus peak | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ভারতে করোনা সংক্রমণ দ্রুত হারে বাড়ছে। তাহলে কি ‘গোষ্ঠী সংক্রমণ’ শুরু হল? এই আশঙ্কায় যখন তটস্থ আমজনতা, সেসময় সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘণ্টাখানেকের  একটি প্রশ্নোত্তর পর্বে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন (Harsh Vardhan) উড়িয়ে দিলেন গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কার কথা। তিনি জানিয়েছেন, মাত্র ১০টি রাজ্যেই সর্বাধিক সংক্রমণ দেখা গিয়েছে। তাও কিছু জেলা থেকেই ব্যাপক হারে সংক্রমণের খবর মিলছে।

ভারতে সংক্রমণ কি শীর্ষে (Coronavirus Peak) পৌঁছেছে? এই প্রশ্নের সরাসরি উত্তর এদিন এড়িয়ে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তাঁর মতে, দেশের বিভিন্ন অংশে সংক্রমণের ছবিটা বিভিন্ন। তিনি বলেন, ‘‘কয়েকটি জেলাতেই সংক্রমণ ব্যাপক ভাবে শুরু হয়েছে। মাত্র ১০টি রাজ্যেই ৭৭ শতাংশ সক্রিয় সংক্রমিতের দেখা মিলেছে। আপনারা যদি রাজ্যভিত্তিক পরিসংখ্যান দেখেন, তাহলে বুঝতে পারবেন সংক্রমণ কিন্তু কিছু জেলাতেই বেশিমাত্রায় দেখা গিয়েছে।’’

[আরও পড়ুন:‌ PM CARES ফান্ড থেকে কত টাকা পেয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক? লোকসভায় জানালেন হর্ষ বর্ধন]

তিনি আরও বলেন, ‘‘ভারতে শহর, শহরতলি ও গ্রামীণ এলাকায় সংক্রমণের বিভিন্ন হার দেখা গিয়েছে।’’ শনিবার দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন দাবি করেছিলেন, এবার কেন্দ্রের স্বীকার করে নেওয়া উচিত যে ভারতে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে। তার পরিপ্রেক্ষিতেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই জবাব বলে মনে করা হচ্ছে।

হর্ষবর্ধনের কথায়, ‘‘আমার মনে হয় আমরা টেকনিক্যাল টার্মের মধ্যে আটকে রয়েছি। কিন্তু একমাত্র ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ কিংবা কেন্দ্র সরকারেরই এই বিষয়ে মন্তব্য করার অধিকার রয়েছে।’’ প্রসঙ্গত, তিনি গত জুনে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

[আরও পড়ুন:‌ভোররাতে মহারাষ্ট্রে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল বহুতল, মৃতের সংখ্যা অন্তত ১০]

গত কয়েক সপ্তাহে ভারতে লাফিয়ে বেড়েছে করোনা সংক্রমণ। ১০ সেপ্টেম্বর থেকেই দৈনিক সংক্রমণের মাত্রা ছাড়িয়েছে ৮০ হাজারের গণ্ডি। মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ লক্ষ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে প্রায় ৮৮ হাজারে।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৮৬,৯৬১ জনের শরীরে মিলেছে মারণ ভাইরাসের জীবাণু। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১১৩০ জনের। তবে আশা জাগাচ্ছে সুস্থতার হার। ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়েছেন ৪৩ লক্ষ ৯৬ হাজার ৩৯৯ জন। এই হারই বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ বলে দাবি স্বাস্থ্যমন্ত্রকের। বিশ্বে করোনার কবল থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা ১৯ শতাংশই ভারতের নাগরিক।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে