২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘তবলিঘি জামাতের জমায়েত থেকেও করোনা ছড়িয়েছে’, সংসদে জানাল কেন্দ্র

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 21, 2020 2:55 pm|    Updated: September 21, 2020 3:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজে তবলিঘি জামাতের ধর্মীয় জমায়েত থেকে কি করোনা (Corona Virus) ছড়িয়েছিল? শেষপর্যন্ত এ নিয়ে লিখিত ব্যাখ্যা দিল কেন্দ্র সরকার। শিব সেনার এক সাংসদের প্রশ্নের জবাবে প্রকৃত তথ্য প্রকাশ করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি (G Kishan Reddy)।

শিব সেনার রাজ্যসভার সাংসদ অনিল দেশাই জানতে চেয়েছিলেন, “নিজামুদ্দিন মারকাজ এলাকায় তবলিঘি জামাতের (Tablighi Jamat) জমায়েত থেকে কি দিল্লি ও দেশের অন্যান্য প্রান্তে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে? জবাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি জানান, “এই জমায়েত থেকেও বহু মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন। দিল্লি পুলিশের রিপোর্ট অনুযায়ী, পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশিকা সত্ত্বেও বদ্ধ জায়গায় বহু মানুষ জমায়েত করেছিলেন। যেখানে মাস্ক বা স্যানিটাইজার ব্যবহার করা হয়নি। সামাজিক দূরত্বের লেশমাত্র ছিল না।”

[আরও পড়ুন : দাঙ্গা নিয়ে ফেসবুক ইন্ডিয়াকে ‘চূড়ান্ত’ সমন পাঠাল দিল্লি বিধানসভা]

শিব সেনা সাংসদ আরও জানতে চেয়েছিলেন, দিল্লির নিজামুদ্দিন এলাকায় কতজন জমায়েত করেছিলেন? এখনও পর্যন্ত কতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে? সেই প্রশ্নের জবাবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান, ২৯ মার্চ সেখান থেকে ২ হাজার ৩৬১ জনকে বের করেছিল দিল্লি পুলিশ। এখনও পর্যন্ত এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ২৩৩ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। তবে জামাত প্রধান মৌলানা সাদকে নিয়ে তদন্ত এখনও চলছে বলে জানান জি কিষান রেড্ডি। প্রসঙ্গত, এ পর্যন্ত দিল্লি পুলিশ ৩৬ দেশের ৯৫৬ জন নাগরিকের বিরুদ্ধে ৫৯টি চার্জশিট দাখিল করেছেন। এই বিদেশিদের ভিসা বাতিল করেছে কেন্দ্র। এমনকী, কিছু বছরের জন্য তাঁদের কালো তালিকাভুক্তও করা হয়েছে। কারণ, পর্যটকের ভিসায় ভারতে এসে তাঁরা ধর্মীয় কাজে অংশ নিয়েছিলেন।

[আরও পড়ুন : দেশে করোনা সংক্রমণ কি শিখরে পৌঁছেছে? জানুন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর জবাব]

প্রসঙ্গত, মার্চ মাসে দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিঘি জামাতের এক ধর্মসভায় অংশগ্রহণকারী বহু তবলিঘি সদস্য করোনায় আক্রান্ত হন। তারপর থেকেই ওই সংগঠনটি সরকারের রোষের মুখে পড়েছে। তবে তবলিঘি জামাতের বিদেশি সদস্যদের ‘কালো তালিকাভুক্ত’ করা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টেও প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় সরকারকে। এমনকী, বম্বে হাই কোর্ট নিজামুদ্দিন মারকাজের ধর্মসভায় যোগ দেওয়া বিদেশি তবলিঘি জামাত সদস্যদের বিরুদ্ধে হওয়া মামলা খারিজ করে দেয়। বম্বে হাই কোর্টের ঔরঙ্গাবাদ বেঞ্চের দুই বিচারপতির পর্যবেক্ষণ ছিল, “পুলিশ রাজনৈতিক চাপে পড়ে ওই জামাত সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। বিদেশিদেরই বলির পাঁঠা করার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।” কিন্তু তারপরেও এদিন রাজ্যসভায় কেন্দ্রের তরফে জানানো হল, “তবলিঘি জামাতের জমায়েত থেকেও বহু মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement