২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোমবার সকাল নাগাদ বিশাখাপত্তনমের সমুদ্র উপকূলে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ছোট জাহাজে হঠাৎই আগুন লাগে। ঠিক তারপরই আগুন লাগার জেরে প্রচণ্ড শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। ঘড়িতে তখন সকাল সাড়ে ১১টা। বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গেই জ্বলে ওঠে ‘কোস্টাল জাগুয়ার’ নামের জাহাজটি। কালো ধোঁয়ায় ভরে যায় চারদিক।

[আরও পড়ুন: এক অটোতে ২৪ জন যাত্রী! ভিডিও ভাইরাল হতেই হাসির রোল নেটদুনিয়ায়]

ঘটনাস্থলে আগুনের হাত থেকে বাঁচতে জলে ঝাঁপ দেন ওই জাহাজের ২৯ জন কর্মী। সেই ঘটনার সময়ে ওই উপকূল অঞ্চলে উপস্থিত ছিল ভারতীয় উপকূল বাহিনীর জাহাজ রানি রাসমণি। তড়িঘড়ি রানি রাসমণি জাহাজকে উদ্ধারকার্ষের জন্য নিয়ে আসা হয় বিস্ফোরণ হওয়া ‘কোস্টাল জাগুয়ার’- এর কাছের অঞ্চলে। শুরু হয় উদ্ধারকাজ। ঝাঁপ দেওয়া ২৯ জনের মধ্যে ২৮ জনকে উদ্ধার করেছে উপকূলরক্ষী বাহিনী। তবে এখনও হদিশ পাওয়া যায়নি সেই সময় জাহাজে উপস্থিত এক কর্মীর। নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধানে জোরদার তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলে উপকূলরক্ষী বাহিনী সূত্রে খবর। একাধিক নৌকা ও হেলিকপ্টারের সাহায্যে নিখোঁজ কর্মীর খোঁজ চলছে৷ পাশাপাশি পাইপের সাহায্যে আগুন নেভানোর কাজও চালান উপকূলরক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা।

[আরও পড়ুন: ‘কাশ্মীরে মুসলিম বেশি বলেই ৩৭০ ধারার বিলুপ্তিকরণ’, বিতর্কিত মন্তব্য চিদম্বরমের]

‘কোস্টাল জাগুয়ার’ নামের জাহাজটি ছিল ‘অফসোর সাপোর্ট ভেসেল’। এই জাহাজগুলির সাহায্যে ছোট বন্দর থেকে মাঝ সমুদ্রে দাঁড়িয়ে থাকা বড় জাহাজে মালপত্র ও যাত্রীদের পাঠানো হয়। উপকূলরক্ষী বাহিনীর তরফে জানানো হয়েছে, এদিন হঠাৎই বিস্ফোরণ ঘটে ‘কোস্টাল জাগুয়ারে’। তবে কীভাবে এই আগুন লাগল তা এখনও জানা যায়নি।  নেপথ্যে কি কোনও নাশকতার ছক রয়েছে?  এমন আশঙ্কা কিন্তু উড়িয়ে দিচ্ছেন না অনেকেই। কারণ এর আগেও একাধিকবার ভারতের উপকূল অঞ্চল জঙ্গি হামলার শিকার হয়েছে। এবারও কি সেরকম কিছু?  তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং