BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মোদি-শাহর বিরুদ্ধে কেন নিষ্ক্রিয় কমিশন? প্রশ্ন তুলে সুপ্রিম কোর্টে কংগ্রেস

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 29, 2019 1:24 pm|    Updated: April 29, 2019 1:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ লাগাতার নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গ করছেন, অথচ তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না নির্বাচন কমিশন। এই অভিযোগ তুলে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হল কংগ্রেস। মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী তথা শিলচরের বিদায়ী সাংসদ সুস্মিতা দেব প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর বিরুদ্ধে কমিশনের নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন। সুপ্রিম কোর্ট তাঁর আবেদন গ্রহণও করেছে। আগামী মঙ্গলবার মামলার শুনানি।

[আরও পড়ুন: চতুর্থ দফায় ৭২ আসনে ভোটগ্রহণ, বিজেপির ঘাঁটিতে থাবা বসাতে মরিয়া বিরোধীরা]

সুস্মিতা দেবের অভিযোগ ভুরি ভুরি অভিযোগ জমা পড়া সত্ত্বেও মোদি বা অমিত শাহদের নির্বাচন কমিশন কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। তাঁর দাবি, মোদির বিরুদ্ধে যাবতীয় অভিযোগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নিষ্পত্তি করতে হবে। কংগ্রেস সাংসদের অভিযোগ, নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ বারবার ভোটপ্রচারে সেনাকে নিয়ে মন্তব্য করছেন। রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য ঘৃণা ছড়াচ্ছেন। অথচ তাঁর বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয় কমিশন। কংগ্রেসের তরফে আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভির দাবি, এখনও পর্যন্ত মোদির বিরুদ্ধে ৩৭টি অভিযোগ জমা পড়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অন্তত দশটি ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগ। অথচ তাঁর বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিচ্ছে না কমিশন।

[আরও পড়ুন: আমি মমতাদির বড় ভক্ত, ওঁকে সম্মান করি: শত্রুঘ্ন সিনহা]

সম্প্রতি একাধিক জনসভায় প্রধানমন্ত্রীকে দেখা গিয়েছে, বালাকোট এয়ারস্ট্রাইক এবং পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার আবেগকে কাজে লাগিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। বিরোধীরা অন্তত এমনটাই অভিযোগ করছে। তাদের অভিযোগ, বালাকোট এয়ারস্ট্রাইকের পর নরেন্দ্র মোদি কর্মসংস্থান, কৃষক সমস্যার মতো ইস্যু ছেড়ে দেশপ্রেম আর জাতীয়তাবাদের আবেগকেই ভোটপ্রচারের হাতিয়ার করেছেন। নিজেকে মজবুত এবং বিরোধীদের মজবুর হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করেছেন বারবার। এমনকী আমেদাবাদে ভোট দেওয়ার সময়ও রাজনৈতিক বক্তব্য রাখার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। এখনও কমিশনের তরফে এসব অভিযোগকে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement