BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মেডিক্যাল কলেজের প্রিন্সিপালদের সঙ্গে বৈঠক, করোনা ঠেকাতে ১০ দফা দাওয়াই মুখ্যসচিবের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 24, 2020 8:58 am|    Updated: April 24, 2020 10:05 pm

An Images

ভারতে অব্যাহত নোভেল করোনা ভাইরাসের দাপট। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩০৭৭। মৃত্যু হয়েছে ৭১৮ জনের। মুম্বই, দিল্লি, কলকাতা, ইন্দোর-সহ একাধিক শহরের করোনা পরিস্থিতি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আরও ভয়াবহ হয়ে উঠছে। পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে শহরগুলিতে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। বাংলাতেও চিন্তা বাড়াচ্ছে করোনা ভাইরাসের দাপট। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮৫, মৃত্যু হয়েছে ১৮ জনের। এ নিয়ে আবার কেন্দ্র-রাজ্যের সংঘাত ফের মাথাচাড়া দিয়েছে। ভারতের বাইরে সবচেয়ে বিধ্বস্ত আমেরিকা। সেখানে মৃতের সংখ্যা ৫০০০০ ছুঁয়েছে। বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস প্রাণ কেড়েছে ১ লক্ষ ৯০ হাজার ৬৫৪ জনের। করোনা সংক্রান্ত সমস্ত আপডেট:

রাত ৯.৩০: করোনা রুখতে ১০ দফা নির্দেশিকা রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহার। সব মেডিক্যাল কলেজের প্রিন্সিপালের সঙ্গে নবান্নে বৈঠকের পর সিদ্ধান্ত। নমুনা সংগ্রহের ১২ ঘণ্টার মধ্যে পরীক্ষার রিপোর্ট দিতে হবে। কোনও রোগীকে ফেরাতে পারবে না মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালগুলি। রেফারের ক্ষেত্রে অ্যাম্বুল্যান্স দিতে হবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। ওয়ার্ডে মৃতদেহ বেশিক্ষণ ফেলে রাখা যাবে না। দ্রুতি গাইডলাইন মেনে সরিয়ে ফেলতে হবে। হাসপাতালগুলি নিয়মিত স্যানিটাইজ করতে হবে। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পিপিই পরা বাধ্যতামূলক।

রাত ৯টা: গুজরাটে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের, আক্রান্ত ১৯১ জন। রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১২৭, মোট আক্রান্ত ২৮১৫।

রাত ৮.৪০: রাজস্থানের কোটায় আটকে পড়া ৩২০ পড়ুয়াকে আনতে ১৮টি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাস পাঠাল অসম সরকার। রবিবারের মধ্যে তারা অসমে পৌঁছবে।

রাত ৮টা: পবিত্র রমজান মাসের প্রাক্কালে আলোয় সেজে উঠল দিল্লির জামা মসজিদ।

সন্ধে ৭.৩০: বিভিন্ন রাজ্যে আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের তালিকা তৈরি করার জন্য নোডাল অফিসারদের নির্দেশ দিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেই তালিকার ভিত্তিতে শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হবে।

সন্ধে ৭টা: লকডাউনের মধ্যে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের যাতে অসুবিধা না হয় তাই রমজান মাসে তাঁদের বাড়ি বাড়ি ফলমূল ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার আবেদন জানিয়ে সব রাজ্যের মুখ্যসচিবকে চিঠি দিলেন জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশনের চেয়ারপারসন সৈয়দ ঘায়রুল হাসান রিজভি।

সন্ধে ৬.৩০: লকডাউনের মধ্যে হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছিলেন। কৃতজ্ঞতা স্বরূপ সদ্যোজাতের নাম পুলিশ কনস্টেবল দয়াবীর সিংয়ের নামে রাখলেন প্রসূতি। এমন সম্মান পেয়ে গর্বিত, জানালেন দিল্লি পুলিশের কর্মী।

সন্ধে ৬টা: দিল্লির চিড়িয়াখানায় বাঘিনীর অস্বাভাবিক মৃত্যু। করোনা সন্দেহে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হল নমুনা।

বিকেল ৫.০২: COVID-19এ রাজ্যে মৃত্যু বেড়ে ১৮। গত ২৪ ঘণ্টা নতুন করে ৫১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮৫। সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা মুখ্যসচিব রাজীব সিনহার। নতুন করে আক্রান্তের খবর মিলেছে উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান থেকে।

বিকেল ৪.৪৫: পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে করোনা আক্রান্ত ৯ বছরের নাবালিকা। এর আগে এই মেয়েটির আত্মীয় আক্রান্ত হয়ে করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। জানিয়েছেন পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী। 

বিকেল ৪.৩০: ফের মাইক হাতে জনতাকে সচেতন করতে পথে নামলেন মুখ্যমন্ত্রী।  যাদবপুর 8B বাসস্ট্যান্ড, আনোয়ার শাহ রোডে মাইকিং করলেন।

বিকেল ৪.১০: গত ২৪ ঘণ্টা দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ১৬৮৪।  সুস্থতার হার ২০.৫৭ শতাংশ।   সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লব আগরওয়াল।

দুপুর ৩.২৫: IIT, দিল্লির সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। বায়োলজিক্যাল সায়েন্সের তরফে ICMR’এর সঙ্গে গাটছড়া বেঁধে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা যায় কি না,  তা নিয়ে আলোচনা। 

দুপুর ১.৪৭: এক বিপদ কাটার আগেই ফের অশনি সংকেত বাঙালি বিজ্ঞানীদের। বর্ষার মরশুমে দেশে দ্বিতীয়বারের জন্য আঘাত হানতে পারে নোভেল করোনা ভাইরাস।  সতর্কবাণী বাঙালি গবেষক সমিত ভট্টাচার্যের।

দুপুর ১২.৫০: মুখ্যমন্ত্রীকে আরও কড়া ভাষায় পালটা চিঠি রাজ্যপালের। ‘আপনার মুসলিম তোষণ নির্লজ্জের পর্যায় পৌঁছে গিয়েছে’, দীর্ঘ চিঠিতে একাধিকবার এ নিয়ে আক্রমণ জগদীপ ধনকড়ের। টুইটারে চিঠিটি পোস্টও করেন তিনি।

দুপুর ১২.২০: বিভিন্ন রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকে বসেছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন ও প্রতিমন্ত্রী অশ্বিণী চৌবে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে চলছে আলোচনা।

বেলা ১১.৫০: পশ্চিম বর্ধমানে করোনার বলি এক। আসানসোল উত্তর থানার জাহাঙ্গীর মহল্লার কে টি রোডের বাসিন্দা ৫৯ বছরের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হল দুর্গাপুরের হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার বিকালে তাঁকে দুর্গাপুরের এক বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ‘ডেডিকেটেড কোভিড’ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় বলে খবর।  রাতেই মৃতের পরিবারের ৪ জন সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। গোটা এলাকা সিল করে দেওয়া হয়েছে।

বেলা ১১: পঞ্চায়েতীরাজ দিবসে দেশের সমস্ত পঞ্চায়েত প্রধানের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে আলোচনা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। রয়েছেন কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমরও। চালু হল দুটি নতুন প্রকল্প। ই-গ্রাম স্বরাজ নামের অ্যাপ উদ্বোধন মোদির। পঞ্চায়েতের কাজে সহজে করা যাবে অ্যাপের মাধ্যমে। 

সকাল ৯.৫৭: ভারতে বেড়াতে এসে আটকে পড়া ৩৬০০ জন ব্রিটিশকে দেশে ফেরাতে ১৪টি নতুন চার্টার্ড বিমান ছাড়া হচ্ছে। ভারতকে জানিয়ে দিল ব্রিটিশ হাইকমিশন।

সকাল ৯.৩০: শেয়ার মার্কেটে পতন অব্যাহত।  সেনসেক্স পড়ল ৪০৪.৬৪ পয়েন্টে। নিফটির সূচক ৯১৮১.৬৫। 

সকাল ৮.৫৫: ভারতে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭১৮। আক্রান্তের সংখ্যা একলাফে ২১,৭০০ থেকে বেড়ে ২৩০৭৭। টুইটারে পরিসংখ্যান দিল স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

সকাল ৮.৪০: করোনা আক্রান্ত মহারাষ্ট্রের আবাসন মন্ত্রী জিতেন্দ্র আওহাদ। তবলিঘি জামাতের উদ্দেশে অভিযান চালানো এক পুলিশকর্তার থেকে তাঁর সংক্রমণ বলে ধারণা।

সকাল ৮.৩৩: ভারতে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের উৎপাদন বাড়ছে। এক মাসে ৩৫ থেকে ৪০ কোটি ট্যাবলেট তৈরি হচ্ছে। এই তথ্য দিয়ে ইন্ডিয়ান ড্রাগ ম্যানুফ্যাকচারস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যানের দাবি, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের কোনও অভাব ঘটবে না।

সকাল ৮.২২: লকডাউনে দেশের অর্থনীতি নিয়ে আলোচনা। নির্মলা সীতারমণের সঙ্গে আজ বৈঠক করবেন নরেন্দ্র মোদি। আর্থিক প্যাকেজ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হতে পারে।

[আরও পড়ুন: ‘সমস্ত মুসলিম সম্প্রদায়কে দায়ী করা যায় না’, নিজামুদ্দিন ইস্যুতে মন্তব্য মুখতার আব্বাস নকভির]

সকাল ৮.০৮: হোম কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম লঙ্ঘন। উত্তরকাশীতে ৬ মাস এবং ৩ বছর বয়সী দুই শিশু-সহ মোট ৫১ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ।

সকাল ৭.৩৪: করোনা মোকাবিলায় ৪৮০০০ কোটি ডলার অনুদানে সায় দিল ট্রাম্প প্রশাসন।

[আরও পড়ুন: করোনা চিকিৎসায় হাত বাড়ালেন কাশ্মীরের ইঞ্জিনিয়াররা, তৈরি হল সস্তার ভেন্টিলেটর]

সকাল ৭: আমেরিকায় আরও দীর্ঘ মৃত্যুমিছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় সেদেশে করোনার ছোবলে মৃত্যু হয়েছে ৩১৭৬ জনের। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা ছুঁল ৫০ হাজার। পরিসংখ্যান দিল জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সমীক্ষা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement