BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আলোচনার মাধ্যমে মিটুক সীমান্ত সমস্যা, লাদাখ নিয়ে ভারত-চিনকে বার্তা দলাই লামার

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: July 15, 2022 4:12 pm|    Updated: July 15, 2022 5:15 pm

Dalai Lama calls for diplomatic conversation to resolve Ladakh crisis | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখে ভারত-চিন সংঘাতের আবহে শান্তির বার্তা দিলেন তিব্বতি ধর্মগুরু দলাই লামা (Dalai Lama)। আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সীমান্ত সমস্যা মিটিয়ে নেওয়া দরকার দুই দেশের, এমনটাই বলেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, এক মাসের জন্য লাদাখ সফরে যাবেন দলাই লামা। সেই সফর শুরুর আগেই তাঁর বক্তব্য বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই দলাই লামার জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি। সেই ঘটনাকে ভাল ভাবে নেয়নি চিন (India-China)।

লাদাখ (Ladakh Issue) সীমান্তে সেনা মোতায়েন করেছে দুই দেশই। সমস্যা মেটানোর জন্য বারবার বৈঠক করলেও সমাধানসূত্র মেলেনি। এহেন পরিস্থিতিতে নোবেল জয়ী ধর্মগুরু বলেছেন, “ভারত ও চিন, এই দুই দেশই জনবহুল। তাই শান্তিপূর্ণ আলাপ আলোচনার মাধ্যমেই লাদাখ সমস্যা মিটিয়ে নেওয়া উচিত দুই দেশের। সামরিক শক্তির ব্যবহার এখন আর চলে না।” পূর্ব লাদাখের বেশ কিছু অংশে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে চিন।

[আরও পড়ুন: দিল্লিতে ফের নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া, চলন্ত গাড়িতে নাবালিকাকে গণধর্ষণের ভিডিও করল অভিযুক্তরা]

বিশেষজ্ঞদের মতে, দলাই লামার এই সফর মোটেই পছন্দ হবে না চিনের (China)। তাঁর বিরুদ্ধে বিছিন্নতবাদী কার্যকলাপে মদত দেওয়ার অভিযোগ তোলা হয় বেজিংয়ের তরফ থেকে। তবে বরাবরই সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন লামা। তিনি বলেছেন, “চিনের কিছু চরমপন্থী নেতা আমাকে বিছিন্নতাবাদী বলে দাগিয়ে দেয়। সবসময়ই আমার নিন্দা করা হয়। কিন্তু আমার মনে হয়, চিন বুঝতে পেরেছে দলাই লামার উদ্দেশ্য বৌদ্ধ সংস্কৃতিকে যেন সঠিকভাবে বাঁচিয়ে রাখা যায়। সেই কারণেই তিব্বতকে স্বশাসনের অধিকার দেওয়া উচিত।”

তাঁর লাদাখ সফর নিয়ে চিনের আপত্তির কথা প্রসঙ্গে দলাই লামা বলেছেন, “এটা তো খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু চিনের সাধারণ মানুষ আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলে না। বরং তিব্বতি বৌদ্ধ সংস্কৃতি নিয়ে অনেকেই উৎসাহী।” চলতি মাসের শুরুর দিকেই দলাই লামার জন্মদিনে নরেন্দ্র মোদির শুভেচ্ছা জানানো ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। তিব্বতের প্রসঙ্গ টেনে চিনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলাচ্ছে ভারত, এমন দাবি করা হয়েছিল বেজিংয়ের তরফে। তবে চিনের আপত্তিকে উড়িয়ে দিয়ে ভারতের তরফে বলা হয়েছে, “দেশের মাননীয় অতিথিকে সম্মান করা আমাদের কর্তব্য।”

[আরও পড়ুন: কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার অপরাধে অ্যাসিড খাইয়ে পুত্রবধূকে হত্যা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে