১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ধারাভিতে দ্বিতীয় আক্রান্তের হদিশ, গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা তুঙ্গে

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 2, 2020 3:45 pm|    Updated: April 2, 2020 5:37 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম বসতি ধারাভি এলাকায় করোনায় আক্রান্ত হলেন দুজন। তাঁদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় মহারাষ্ট্রের গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা কয়েকগুন বাড়িয়ে দিল।

বুধবার সন্ধ্যায় ধারাভিতে প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল। এর ঘণ্টা খানেকের মধ্যেই মৃত্যু হয় বছর ওই প্রৌঢ়ের। মুম্বইয়ের সিওন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। অভিযোগ, সময়মতো তিনি ভেন্টিলেটর পাননি। এরপর বৃহস্পতিবার ফের ধারাভি থেকেই দ্বিতীয় করোনা আক্রান্তের খবর মিলল। জানা গিয়েছে, এই ব্যক্তি বৃহন্মুম্বই পুরসভার সাফাই কর্মী ছিলেন। ওরলি এলাকার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। কিন্তু ধারাভি এলাকায় সাফাই কাজে যুক্ত ছিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন : দেশে টানাটানি সত্বেও সার্বিয়াতে চিকিৎসা সরঞ্জাম রপ্তানি! কেন্দ্রকে তোপ কংগ্রেসের]

প্রসঙ্গত, এখনও পর্যন্ত দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্রেই সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। একইসঙ্গে চরম আতঙ্কে ভুগছিলেন মুম্বইকাররা। কারণ এশিয়ার বৃহত্তম বসতি হল ধারাভি। এই ধারাভি বসতিতে প্রায় ১৫ লাখ লোক একসঙ্গে বসবাস করেন। আর এই এলাকায় একবার সংক্রমণ ছড়ালে তা গোষ্ঠী সংক্রমণের রূপ নিতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিলেন বিশেষজ্ঞরাও। ক্রমশ সেই আশঙ্কাই সত্যি হচ্ছে। ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ে এই এলাকায় দুজনের আক্রান্ত হওয়ার খবরে সেই আশঙ্কা এবার সত্যি হওয়ার পথে।

জানা গিয়েছে, প্রথম আক্রান্তের পরিবারের সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। যে বাড়িতে তিনি থাকতেন সেটিকে সিল করে দেওয়া হয়েছে। সেই বিল্ডিংয়ে ৩০০ জনের বাস বলে খবর।ওই বাসিন্দাদের প্রয়োজনীয় খাবার-জল এবং অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস সরবরাহের ব্যবস্থা করেছে সরকার।

[আরও পড়ুন : ইন্দোরের পর বেঙ্গালুরু, সচেতনতা প্রচারে গিয়ে আক্রান্ত স্বাস্থ্যকর্মী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement