৫ মাঘ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই দেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার কমছে। বিষয়টি নিয়ে বারবার বিরোধীদের আক্রমণের শিকার হয়েছেন দেশের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে দেশের আর্থিক হাল শোধরানোর নানা চেষ্টা হলেও অবস্থার কোনও পরিবর্তন হয়নি। এই পরিস্থিতির মধ্যে ফের খারাপ খবর পাওয়া গেল স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার সদ্য প্রকাশিত একটি রিপোর্টে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী এই বছরে কাজ হারাতে পারেন প্রায় ১৬ লক্ষ মানুষ। এর ফলে দেশের মধ্যে অসম ও রাজস্থানের হাল সবথেকে খারাপ হবে বলে ওই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

সদ্য প্রকাশিত ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, Employees’ Provident Fund Organisation-এর তথ্য অনুযায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ভারতে ৮৯.৭ লক্ষ নতুন চাকরি হয়েছিল। যারা পে-রোলে ছিল। কিন্তু, ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে তা কমপক্ষে ১৫.৮ লক্ষ কমে যাবে। ফলে কাজ হারাতে পারেন প্রায় ১৬ লক্ষ মানুষ। এর ফলে দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যের মধ্যে অসম ও রাজস্থানের হাল সবথেকে খারাপ হতে চলেছে বলেই জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘দূর হও এখান থেকে, তুমি আরএসএসের লোক’! হাসপাতালে ডাক্তারকে হুমকি অখিলেশের ]

গত বছরের এপ্রিল থেকে অক্টোবর, এই ৬ মাসের মধ্যে ৪৩.১ লক্ষ নতুন চাকরি তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি যা তাতে এ বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত মোট ৭৩. ৯ লক্ষ নতুন চাকরি তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। যা গত অর্থবর্ষের থেকে প্রায় ১৬ লক্ষ কম।

[আরও পড়ুন: ভরতুকি বাতিলের পর এবার সংসদের খাবারের মেনুতে বদল! মিলবে শুধু নিরামিষ পদ ]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, EPFO মূলত স্বল্প বেতনের চাকরিগুলির তথ্য সংগ্রহ করে যেগুলিতে প্রতি মাসে ১৫,০০০ টাকা করে মাইনে দেওয়া হয়। এর বাইরে থাকা কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারি এবং বেসরকারি চাকরি সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করা হয় ন্যাশনাল পেনশন স্কিম (NPS)-র আওতায়। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গতবারের তুলনায় এই অর্থবর্ষে ৩৯ হাজার চাকরি কম হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং