১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

কীভাবে কার্যকর হবে নতুন শিক্ষানীতি? বিভিন্ন রাজ্যের শিক্ষাসচিবদের মতামত চাইল কেন্দ্র

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 23, 2020 2:28 pm|    Updated: August 23, 2020 2:30 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একক সিদ্ধান্ত নয়, বরং সকলের মতামত নিয়েই কার্যকর হবে নয়া জাতীয় শিক্ষানীতি (NEP 2020)। এই মর্মে আজ টুইট করেছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। রাজ্যের শিক্ষাসচিবদের কাছে মতামত জানতে চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষাসচিব। জানতে চাওয়া হয়েছে শিক্ষক, অধ্যাপকদের মতামতও।

নতুন জাতীয় শিক্ষানীতি ঘোষণার পর থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কম সমালোচনা হয়নি। বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি বারবার অভিযোগ তুলেছে, আলোচনা না করে এককভাবে নতুন শিক্ষানীতি প্রণয়ন করছে কেন্দ্র। এভাবে শিক্ষা বিষয়টিকে কেন্দ্র-রাজ্যের যৌথ তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে, এই অভিযোগও শোনা গিয়েছে। নতুন শিক্ষানীতিতে যে বিবিধ ভাষা শিক্ষা প্রাধান্য পেয়েছে, তাও ভালভাবে গ্রহণ করতে পারেনি অনেকে। দক্ষিণের রাজ্যগুলির স্পষ্ট বক্তব্য, এভাবে হিন্দি ভাষা চাপিয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা চলছে, যা তারা কিছুতেই মেনে নেবে না। এমনকী এ রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর, শিক্ষামহলের বিশিষ্টজনেরাও নয়া শিক্ষানীতির সমালোচনা করেছেন।

[আরও পড়ুন: গান্ধী পরিবারে আস্থা নেই! নেতৃত্ব সংকট নিয়ে সোনিয়াকে চিঠি ২৩ জন কংগ্রেস নেতার]

এমনিই বিরোধিতার মাঝে পড়ে নতুন শিক্ষানীতি কার্যকরের ভার আর এককভাবে নিজেদের হাতে রাখতে চাইছে না কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় শিক্ষাসচিব অনিতা কারওয়াল রাজ্যের স্কুল শিক্ষাসচিবদের চিঠি পাঠিয়ে জানতে চেয়েছেন, তা কার্যকরের ব্যাপারে তাঁদের পরিকল্পনা কী। সচিব ছাড়াও বিভিন্ন স্কুলের প্রিন্সিপাল, শিক্ষকদের মতামতও গ্রহণ করা হবে। কারণ, শিক্ষকরাই যে মূল কাজটা করবেন, তেমনটাই মনে করেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল (Dr. Ramesh Pokhriyal Nishank)। তাই ৩৪ বছর পর দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার খোলনলচে বদলে ফেলার মতো এত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে সকলের সাহায্য চান তিনি।

[আরও পড়ুন: রঞ্জন গগৈকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করতে পারে বিজেপি, দাবি অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement