BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২৫ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হিজবুল প্রধান সালাউদ্দিন ও ছোটা শাকিল-সহ ১৮ জনকে ‘সন্ত্রাসবাদী’ ঘোষণা করল ভারত

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 27, 2020 5:23 pm|    Updated: October 27, 2020 5:29 pm

Hizbul chief Syed Salahudeen, Bhatkal brothers of IM among 18 designated as ‘terrorists’ by MHA । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংশোধিত ইউএপিএ (Ministry of Home Affairs) আইনের মাধ্যমে সৈয়দ সালাউদ্দিন ও দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গী ছোটা শাকিল-সহ পাকিস্তানের মদতপুষ্ট ১৮ জন ব্যক্তিকে সন্ত্রাসবাদী হিসেবে ঘোষণা করল ভারত। মঙ্গলবার এই ১৮ জনের নাম দিয়ে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, জাতীয় নিরাপত্তাকে আরও সুরক্ষিত করতে এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি মেনে চলতে আজ মোদি সরকার আরও ১৮ জনের নাম ব্যক্তিগত জঙ্গি হিসেবে ঘোষণা করেছে। ১৯৬৭ সালে তৈরি হওয়া আনলফুল অ্যাকটিভিটিস (প্রিভেনশন) অ্যাক্টের ২০১৯ সালে হওয়া সংশোধনীর ভিত্তিতে তাদের নাম চতুর্থ তফসিলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: মুম্বই ও দিল্লিতে হামলার হুমকি, পাকিস্তানের নম্বর থেকে ফোন NIA’র দপ্তরে ]

ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, ধৃতদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদী কাজকর্ম চালানোর সমস্ত প্রমাণ রয়েছে। কীভাবে তারা সীমান্তের ওপার থেকে ভারতের অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে তারও তথ্য পাওয়া গিয়েছে। ১৮ জনের ওই তালিকায় পাকিস্তানের মদতপুষ্ট হিজবুল মুজাহিদিন প্রধান সৈয়দ সালাউদ্দিন (Syed Salahudeen) -এর পাশাপাশি ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের সৃষ্টিকর্তা রিয়াজ ও ইকবাল ভাটকলদেরও নাম রয়েছে। এছাড়া বাকিরা হল মুম্বই হামলার ওই অন্যতম মূলচক্রী কুখ্যাত লস্কর জঙ্গি সাজিদ মীর, ইউসুফ মুজাম্মীল, লস্কর প্রধান হাফিজ সইদের শ্যালক আবদুর রহমান মাক্কি, ১৯৯৯ সালের কান্দাহার বিমান অপহরণে অভিযুক্ত ইব্রাহিম আতাহার ও ইউসুফ আজহার, ১৯৯৩ সালের মুম্বই বিস্ফোরণে জড়িত টাইগার মেনন ও দাউদ ইব্রাহিমের ডানহাত হিসেবে খ্যাত ছোটা শাকিল।

আগের ইউএপিএ আইন অনুযায়ী, একমাত্র নাশকতার কাজে যুক্ত কোনও গোষ্ঠীকেই জঙ্গি সংগঠনের তকমা দেওয়া যেত। কিন্তু, ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে সেই আইনে সংশোধন করে ব্যক্তিগত সন্ত্রাসবাদী হিসেবে ঘোষণা করার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এরপর ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে চার জনকে ও ২০২০ সালের জুলাই মাসে ৯ জনকে জঙ্গি তকমা দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার।

[আরও পড়ুন: প্রেমের প্রস্তাবে ‘না’, হরিয়ানায় তরুণীকে প্রকাশ্যে গুলি করে খুন সংখ্যালঘু যুবকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে