২০ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ৩ জুন ২০২০ 

Advertisement

সোনিয়া গান্ধীকে ‘মৃত ইঁদুর’ বলে ফের বিতর্কে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 14, 2019 3:32 pm|    Updated: October 14, 2019 3:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর সেখানকার মেয়েদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। তার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের বিতর্কে জড়ালেন হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খাট্টার। রবিবার একটি নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধীকে ‘মরা ইঁদুর’ বলে কটাক্ষ করেন তিনি। এর জেরে প্রবল বিতর্ক তৈরি হয়েছে দেশের রাজনৈতিক মহলে। নিন্দায় সরব হয়েছেন কংগ্রেস নেতারা। নারীবিরোধী খাট্টারকে এই মন্তব্যের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বলেও দাবি তুলেছেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন: দীপাবলিতে নাশকতার ছক বানচাল, ১৩ দিন তল্লাশির পর ধৃত দুই হিজবুল জঙ্গি]

আগামী ২১ অক্টোবর হরিয়ানার বিধানসভা নির্বাচন। সেই উপলক্ষে রবিবার সোনিপথে দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে নির্বাচনী জনসভা করতে গিয়েছিলেন মনোহর লাল খাট্টার। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ফের সোনিয়া গান্ধীকে সভাপতি বানানোর জন্য কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। কটাক্ষ করে বলেন, ‘লোকসভায় ভরাডুবির পর কংগ্রেসের সভাপতি পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। বলেছিলেন, গান্ধী পরিবারের বাইরে থেকেই নতুন সভাপতি বেছে নেওয়া হবে। তাঁর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছিলাম আমরা। ভেবেছিলাম, পরিবারতান্ত্রিক রাজনীতির অবসান হবে। কিন্তু, তিন মাস পরে ফের সনিয়া গান্ধীকেই কংগ্রেসের সভাপতি পদে বসতে দেখলাম। এটা যেন পাহাড় খুঁড়ে ইঁদুর বেরোল, তাও আবার মরা। আসলে এটাই ওদের অবস্থা।’

হরিয়ানায় বিজেপির প্রধান মুখের এই বিতর্কিত মন্তব্যে বেজায় চটেছে কংগ্রেস নেতৃত্ব। এর জন্য তাঁকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি করেছেন। কংগ্রেসের অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করা হয়েছে, এই মন্তব্য অত্যন্ত আপত্তিজনক ও মানহানিকর। আসলে এর মধ্যে দিয়ে বিজেপি ও হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রীর নারীবিরোধী মনোভাবই প্রকাশ পেয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা করছি। অবিলম্বে এই মন্তব্যের জন্য তাঁকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি জানাচ্ছি।

[আরও পড়ুন:‘কাজ চাইলেই চাঁদ দেখাচ্ছে সরকার’, নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকে তোপ রাহুলের]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আগামী ২১ অক্টোবর হরিয়ানার ১০ হাজার ৩০৯ টি এলাকার ১৯ হাজার ৫০০টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে। আর এর ফলাফল প্রকাশিত হবে ২৪ অক্টোবর।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement