৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: থানায় ভাঙচুর চালানোর অভিযোগে একদল বৃহন্নলাকে বেধড়ক লাঠিপেটা করল পুলিশ। সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মিরাট জেলার লালকুর্তি পুলিশ স্টেশনে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়েছে ওই এলাকায়।

[আরও পড়ুন- উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ‘রোষে পড়ে’ গ্রেপ্তার সাংবাদিককে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার সকালে লালকুর্তি এলাকার একটি বাড়িতে গিয়ে টাকা তুলছিল বহিরাগত কিছু বৃহন্নলা। বিষয়টি জানতে পেরে তাদের বাধা দেয় স্থানীয় বৃহন্নলারা। কারণ, তাদের মধ্যে একে অপরের এলাকায় প্রবেশ না করার অলিখিত নিয়ম আছে। যদিও সেকথা মানতে চায়নি বাইরে থেকে আসা বৃহন্নলারা। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে উভয়পক্ষের বচসার মাঝেই শুরু হয় মারামারি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দু’পক্ষকেই থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করে। কিন্তু, সেখানে গিয়েও ওই বৃহন্নলারা গন্ডগোল করে বলে অভিযোগ। কয়েকজন পুলিশকর্মীকে মারধর করার পাশাপাশি থানাতে ভাঙচুরও চালায়। এরপরই রুদ্রমূর্তি ধরে লালকুর্তির পুলিশকর্মীরা। হাতে কাছে থাকা বৃহন্নলাদের বেধড়ক লাঠিপেটা করে।

ওই সময়ের একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, থানার মধ্যে থাকা রাস্তার উপর বসে আছে এক বৃহন্নলা। আর তাকে বেধড়ক লাঠিপেটা করছে দুই পুলিশকর্মী। কিছুক্ষণ মারধর খাওয়ার পর পালিয়ে থানার ঘরে ঢুকে পড়ে সে। এরপর অন্য আরেকটি বৃহন্নলাকে লাঠিপেটা করতে থাকে পুলিশকর্মীরা। চুলের মুঠি ধরে থানার দেওয়ালে ঠুকে দেয়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে থানা থেকে পালিয়ে যায় কিছু বৃহন্নলা। আর বাকিগুলোকে বেধড়ক পিটিয়ে থানার মধ্যে ঢুকিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

[আরও পড়ুন- দু্র্নীতিতে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক! আয়কর দপ্তরের ১২ আধিকারিককে সরাল মোদি সরকার]

এপ্রসঙ্গে মিরাটের এসএসপি জানান, থানার মধ্যে ঢুকে গন্ডগোল করছিল ওই বৃহন্নলারা। বাধ্য হয়ে পুলিশকে কড়া পদক্ষেপ নিতে হয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং