২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘দেশভাগ করে বুদ্ধিমানের কাজ করেছেন নেহরু-জিন্নাহরা’, কংগ্রেস নেতার মন্তব্যে বিতর্ক

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 2, 2022 4:40 pm|    Updated: June 3, 2022 11:07 am

MP Congress Leader praises Jinnah and Nehru for dividing Country | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশভাগের সঙ্গে বহু মানুষের আবেগ জড়িয়ে। অনেকেই মন থেকে দেশের দু’টুকরো হওয়াটা মানতে পারেননি। তাঁদের কথায়, দেশভাগ করা সম্পূর্ণ ভুল সিদ্ধান্ত। কিন্তু কংগ্রেসের এক বর্ষীয়ান নেতা বলছেন, “দেশভাগ বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত ছিল।” একইসঙ্গে স্বাধীনতা সংগ্রামী হিসেবে মহম্মদ আলি জিন্নাহর প্রশংসা করলেন মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) প্রাক্তন ক্যাবিনেট মন্ত্রী সজ্জন সিং বর্মা।

মধ্যপ্রদেশর প্রাক্তন মন্ত্রীর কথায়, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু (Jawaharlal Nehru) এবং মহম্মদ আলি জিন্নাহ (Muhammad Ali Jinnah) দেশভাগ নিয়ে সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। দেশভাগ করাটা অত্যন্ত বিচক্ষণ ফয়সালা ছিল।” এর পর জিন্নাহর ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি বলেন, “জিন্নাহ স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছেন, এটা সকলের মনে রাখা উচিৎ। তিনি দেশকে ভাঙেননি। বরং সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।” একইসঙ্গে বিজেপির বিরুদ্ধেও তোপ দেগেছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: কেকের মৃত্যুর জন্য দায়ী প্রশাসনিক গাফিলতি! CBI তদন্ত চেয়ে অমিত শাহকে চিঠি দিলেন সৌমিত্র]

ধর্ম-জাতপাতের ভেদাভেদ নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন সজ্জন সিং বর্মা। তাঁর কথায়, “উনি (জিন্নাহ) মুসলিম ছিলেন বলে কি স্বাধীনতা সংগ্রামীর সংজ্ঞা বদলে যাবে? এই সংস্কৃতিটা আমদানি করছে বিজেপি।” তিনি আরও বলেন, “২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাঁর বক্তব্য রাখার সময় বলেছিলেন, ১৯৪৭ সালে দেশভাগের জন্য দায়ী ছিলেন নেহরু এবং জিন্নাহ। দেশবাসীর উচিৎ এই দুই নেতাকে ধন্যবাদ দেওয়া। কারণ, তারা সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।”

এর পরই তাঁর খোঁচা, “জিন্নাহ যদি দেশভাগ না করতেন তাহলে আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত এবং নরেন্দ্র মোদিরা বর্তমানে নিজেদের ক্ষমতা ভোগ করতে পারতেন না।” স্বাভাবিকভাবেই তাঁর এহেন মন্তব্য ঘিরে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

[আরও পড়ুন: খারিজ ইডির আবেদন, চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারবেন, হাই কোর্টের রায়ে স্বস্তিতে অভিষেক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে