BREAKING NEWS

১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নির্মলার বাজেটে আর্থিক ‘টিকা’র আশায় জনতা, আয় বাড়াতে বিলগ্নীকরণই পথ কেন্দ্রের!

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 1, 2021 8:33 am|    Updated: February 1, 2021 9:40 am

Nirmala Sitharaman will present the ninth union budget of Prime Minister Narendra Modi's government in the Lok Sabha | Sangbad Pratidin

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: আজ সকাল ১১টায় লোকসভায় সাধারণ বাজেট পেশ করতে চলেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ (Nirmala Sitharaman)। দেশে করোনা অতিমারীর আবহেই এবারের বাজেট পেশ হচ্ছে। ইতিহাসে প্রথমবার বাজেট পেশ হচ্ছে পেপারলেস। এবার ট্যাবের মাধ্যমে বাজেট পেশ করতে চলেছেন অর্থমন্ত্রী। দেশের মানুষকে করোনা থেকে মুক্তি দিতে ইতিমধ্যেই করোনা টিকাকরণ কর্মসূচি চালু করেছে সরকার। এই সময় করোনা কবলিত ভারতীয় অর্থনীতির জন্য নির্মলা কী ‘ইকোনমিক ভ্যাকসিন’ নিয়ে আসেন, সেটাই দেখার অপেক্ষায় দেশ। তিনি নিজে ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন, এবারের বাজেট (Union Budget ) অন্যবারের তুলনায় একেবারেই আলাদা হবে। বাজেট নিয়ে আশার কথা শোনালেও করোনার গ্রাস থেকে ভারতীয় অর্থনীতিকে টেনে তোলা এবারের বাজেটে নির্মলার সামনে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ। কর্মসংস্থান তৈরি, বাজার অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা, দেশে মারাত্মক আকার নেওয়া অর্থনৈতিক বৈষম্যের ব‌্যবধান কমানো ইত‌্যদি তার মধ্যে অন‌্যতম। আবার অতিমারীর আবহে বাজেটে স্বাস্থ্যক্ষেত্রকে মজবুত করার রাস্তা দেখানো, করোনাকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) ঘোষিত ‘আত্মনির্ভর ভারতে’র মতো উদ্যোগকে আরও গতি দেওয়ার ব‌্যাপারেও খেয়াল রাখতে হবে সীতারমণকে।

করোনাকালে বহু মানুষ কাজ হারিয়েছে, বিশেষ করে অসংগঠিত ক্ষেত্রে বিস্তর কর্মসংঙ্কোচন হয়েছে। সেই ফাঁক পূরণ করতে কেন্দ্র বেশ কয়েকটি প‌্যাকেজও ঘোষণা করেছে। সেই প‌্যাকেজগুলিকে প্রধানমন্ত্রী ‘মিনি বাজেট’ বলে অভিহিত করে ২০২১-এর সাধারণ বাজেটকে তার অংশ বলেই মন্তব‌্য করেছেন। এবার বাজেটে কর্মসংস্থানের দিকে নজর রেখে পরিকাঠামো উন্নয়নে জোর দেওয়ার পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে। পরিকাঠামো ক্ষেত্রে বরাদ্দ বৃদ্ধি করে তার মাধ্যমে কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করাই সরকারের লক্ষ্য। একইভাবে বরাদ্দ বৃদ্ধি পাবে স্বাস্থ্যক্ষেত্রেও। স্বাস্থ্যক্ষেত্রের পরিকাঠামো উন্নয়নের পাশাপাশি করোনার টিকার জন্য খরচ তোলার মতো ভাবনা সরকারের রয়েছে। কেন্দ্রীয় সূত্রের খবর, বাজেটে করোনা সেস চালু করা এবং সেই সেসের টাকা করোনার টিকার জন্য খরচ করার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। প্রথম সারির করোনা-যোদ্ধাদের টিকার খরচ কেন্দ্র সরকার বহন করলেও টিকাকরণের তালিকায় দ্বিতীয় সারিতে থাকা বাকি ২৭ কোটি মানুষের টিকার খরচ নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্তের কথা সরকার জানায়নি। বাজেটে করোনা সেস চালু হলে এ বিষয়ে প্রশ্নের সমাধান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘কুমিরের কান্না’, সাধারণতন্ত্র দিবসের হিংসা নিয়ে মোদির বক্তব্যকে আক্রমণ কংগ্রেসের]

বাজেটে মধ্যবিত্তদের নজর থাকে আয়কর ছাড়ের দিকে। মধ্যবিত্তদের আয়করের ক্ষেত্রে সুবিধা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছেন বেশ কিছু অর্থনীতিবিদ। তাঁদের মত, তাতে মানুষের হাতে কিছু টাকা আসে এবং তারা খরচ করতে পারে, সেই বিষয়টিকে মাথায় রাখা হচ্ছে। বাজার অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার লক্ষ্যেই এই ধরনের বেশ কিছু পদক্ষেপের কথা অর্থমন্ত্রী সীতারমণ আজ ঘোষণা করতে পারেন। আয়কর স্তরের একেবারে উপরের সারিতে যারা রয়েছেন, অর্থাৎ উচ্চ আয়ের মানুষের ক্ষেত্রে, আয়কর বৃদ্ধির সম্ভাবনাই প্রবল। এতে একদিকে সরকারের রাজস্ব সংগ্রহ ও অন্যদিকে আর্থিক বৈষম্য কম করার ভাবনা রয়েছে। প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রেও এবারে বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হবে বলেই নিশ্চিত। একদিকে, পড়শি দেশের সঙ্গে টানাপোড়েন, অন্যদিকে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রকে আত্মনির্ভর করে তোলার জন্য ইতিমধ্যেই সরকার যে পদক্ষেপ করেছে তাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া দরকার। করোনাকালে সরকারের আর্থিক ঘাটতি মেটাতে রাজস্ব সংগ্রহের উপরও জোর দেওয়া হবে বাজেটে। সরকারের আয় বৃদ্ধি করতে বিলগ্নীকরণের জন্য দরজা উন্মুক্ত করে দেওয়া হতে পারে। তেল, গ্যাস, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক, স্বাস্থ্যের মতো হাতেগোনা কয়েকটি ক্ষেত্রকে বাদ দিয়ে বাকি প্রায় সমস্ত ক্ষেত্রের জন্যই বিলগ্নীকরণের দরজা হাট করে দেওয়া হতে পারে। শিক্ষাক্ষেত্রে অনলাইন ব্যবস্থাকে মজবুত করে তুলতে বেশ কিছু পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করা হতে পারে। প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগকে আরও বাড়াতে আমদানির ক্ষেত্রে কিছু সামগ্রীর উপর যেমন ছাড় দেওয়া হতে পারে, তেমনই আবার ‘আত্মনির্ভর ভারত’ উদ্যোগকে চাঙ্গা করতে এক ডজনেরও বেশি সামগ্রীর উপর নিশ্চিতভাবেই শুল্ক বৃদ্ধি হতে চলেছে বলেই কেন্দ্রীয় সূত্রের খবর।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement