৩ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে আলাদা আলাদাভাবে সরব হয়েছিলেন আগেই। এবার এই দুই ইস্যুকে একত্রিত করে মোদি সরকারকে তোপ দাগলেন সংযুক্ত জনতা দলের নেতা তথা তৃণমূল কংগ্রেসের ভোটকৌশলী প্রশান্ত কিশোর। রীতিমতো ঝাঁজালো আক্রমণে বিঁধলেন মোদি-শাহ জুটিকে। প্রশান্ত কিশোরের মতে, এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল মোদি সরকারের এমন দুই ধারালো অস্ত্র, যার মাধ্যমে ধর্মের ভিত্তিতে বৈষম্য সৃষ্টি করা হবে। এমনকী, ধর্মের ভিত্তিতে মানুষেকে শাস্তি পর্যন্ত দেওয়া হতে পারে।

অসমে এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হওয়ার পরই প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিলেন প্রশান্ত কিশোর। প্রতিবাদ করেছেন নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল সংসদে পাশ হওয়ার পর ফের প্রতিবাদে সরব হন তৃণমূলের পরামর্শদাতা। দু’বারই তিনি নিজের দল জেডিইউয়ের বিরুদ্ধে গিয়েছেন। নীতীশ কুমারের নেতৃত্বে দল যখন মোদি সরকারের পাশে দাঁড়িয়েছে, তখন প্রশান্ত ব্যক্তিগতভাবে গিয়েছেন বিরোধী শিবিরে। যা রীতিমতো আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে রাজনৈতিক মহলে।

[আরও পড়ুন: বন্ধ ইন্টারনেট, টুইটারে মোদির আশ্বাসবাণী দেখতেই পেলেন না অসমবাসী!]

এবার মোদি বিরোধিতায় সুর আরও চড়ালেন তিনি। একটি টুইটে ভোটকৌশলী বলেন, “আমাদের বলা হল, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল শুধু নাগরিকত্ব দেওয়ার জন্য, কারও কাছ থেকে নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার জন্য নয়। কিন্তু সত্যি হল, ধর্মের ভিত্তিতে মানুষের বিচার করতে নাগরিকপঞ্জি এবং নাগরিক সংশোধনী বিল কেন্দ্রের হাতে জোড়া অস্ত্র।” প্রশান্ত কিশোরের লাগাতার এই মোদি বিরোধিতা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চাপা গুঞ্জন চলছে। একসময় বিজেপির হয়ে কাজ করেছেন এই ভোটকৌশলী। মোদিকে প্রধানমন্ত্রীর আসরে বসানোর পিছনেও তাঁর তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা আছে। এখন অবশ্য কাজ করছেন তৃণমূলের সঙ্গে। এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের মতো ইস্যুতে তাঁর অবস্থানও তৃণমূলের মতোই। এখানেই প্রশ্ন, তবে কী প্রশান্ত কিশোর ব্যক্তিগতভাবে মোদি বিরোধী মুখ হয়ে উঠতে চাইছেন? নাকি, তৃণমূলকে রাজনৈতিকভাবে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্য তাঁর এই বিরোধিতা?

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং