BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  রবিবার ২৯ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘এক দেশ, এক নির্বাচন’ নিয়ে আলোচনার জন্য সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক প্রধানমন্ত্রীর

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 16, 2019 8:31 pm|    Updated: June 16, 2019 8:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক দেশ, এক নির্বাচন নিয়ে আলোচনার জন্য সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামী ১৯ জুন ওই বৈঠক করার জন্য সমস্ত রাজনৈতিক দলের প্রধানদের আমন্ত্রণ পাঠিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি সমস্ত দলের লোকসভা এবং রাজ্যসভার প্রতিনিধিদের উপস্থিতি থাকার জন্যও আহ্বান জানানো হয়েছে বলে খবর।

[আরও পড়ুন- পরিশ্রুত পানীয় জল না পেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন উত্তরপ্রদেশের কৃষকের]

ওই বৈঠকে বিধানসভালোকসভা নির্বাচন একসঙ্গে করার পাশাপাশি অন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়েও আলোচনা হবে বলে জানা গিয়েছে। রবিবার ওই বৈঠকের কথা জানান মোদি সরকারের সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী। 

রবিবার সর্বদলীয় বৈঠকের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন প্রহ্লাদ যোশী। তিনি জানান, প্রত্যেকবার সংসদে অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে সর্বদলীয় বৈঠক হয়ে থাকে। সংসদীয় কাজকর্ম সুষ্ঠুভাবে যাতে হয় তার জন্যই এই বৈঠক হয়। গতবার সাংসদদের জন্য দু’বছর নষ্ট হয়েছে। এর ফলে সাধারণ মানুষের আশাপূরণ হয়নি। এবার যাতে তার পুনরাবৃত্তি না ঘটে তার জন্য ওই বৈঠকে আলোচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী। এর জন্য বিরোধী দলের সাংসদদের কাছে সহযোগিতা করার আহ্বান জানানো হবে। এছাড়া ওই বৈঠকে ২০২২ সালে দেশের ৭৫তম স্বাধীনতা দিবসমহাত্মা গান্ধীর ১৫০তম জন্মবার্ষিকী পালনের বিষয়েও আলোচনা হবে। পরেরদিন সমস্ত রাজ্যসভা ও লোকসভা সাংসদদের ডিনারের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সেখানে সরকারের সঙ্গে নিজেদের চিন্তাভাবনা আদান-প্রদান করার সুযোগ পাবেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন- রাজ্যের কাজে হস্তক্ষেপ করছে কেন্দ্র, প্রধানমন্ত্রীর কাছে নালিশ তৃণমূলের]

রবিবারের সর্বদলীয় বৈঠকে কৃষক অসন্তোষ, বেকারত্ব ও খরা পরিস্থিতি সম্পর্কে অধিবেশনে আলোচনার দাবি তোলে বিরোধীরা। কিন্তু, এই বিষয়ে আলোচনা হবে কিনা সরকারের তরফে স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। তবে বৈঠকের পরেই টুইট করেন প্রধানমন্ত্রী। লেখেন, “আজকের সর্বদলীয় বৈঠক সফল হয়েছে। নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর ও সংসদের অধিবেশন শুরুর আগে  এটা ফলপ্রসূ হবে বলেই মনে হচ্ছে। বৈঠকে মূল্যবান পরামর্শ দেওয়ার জন্য সমস্ত নেতাদের ধন্যবাদ জানাই। মানুষের আশাপূরণের জন্য নির্বিঘ্নে সংসদ চালানোর বিষয়ে সবাই একমত হয়েছি।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement