BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফলাফলের আগে বিরোধীদেরও ‘চৌকিদার’ বানিয়ে ফেললেন মোদি!

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 22, 2019 2:53 pm|    Updated: May 22, 2019 2:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’, ‘ম্যায় ভি চৌকিদার’- ভোটের আগে এবং ভোট চলাকালীন এই পরস্পর-বিরোধী দুটি স্লোগান আকছার শোনা যাচ্ছিল। রাহুল গান্ধীর চৌকিদার চোর হ্যায় স্লোগানের পালটা ম্যায় ভি চৌকিদার অভিযান শুরু করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভোট মিটেছে, কিন্তু চৌকিদারি যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না দেশবাসীর। এবার বিরোধীদেরও রীতিমতো চৌকিদার বানিয়ে ফেলেছেন প্রধানমন্ত্রী। বিরোধী নেতা-কর্মীরা স্বেচ্ছাই শুরু করেছেন পাহারাদারির কাজ। বুঝতেই পারছেন কথা হচ্ছে ইভিএম পাহারা দেওয়ার। বিভিন্ন এক্সিট পোলের ফলাফল প্রকাশ্যে আসতেই চোখ কপালে উঠেছে বিরোধী শিবিরের। বুথ ফেরত সমীক্ষার দাবি উড়িয়ে তাদের দাবি, এসবই আসলে ইভিএম কারচুপির চক্রান্ত।

Chowkidari

[আরও পড়ুন: যোগী রাজ্যে ‘নির্যাতিত’, মোদি জিতলে গ্রাম ছাড়ার সিদ্ধান্ত সংখ্যালঘুদের]

আসলে, এক্সিট পোলের আড়ালে রাতারাতি হাজার হাজার ইভিএম বদলে ফেলতে চাইছে শাসক শিবির এমনটাই দাবি অধিকাংশ বিরোধী দলের। তাই, বিরোধী নেতা-কর্মীরা কাজকম্ম ফেলে লেগে পড়েছেন ইভিএম পাহারার কাজে। সোমবার থেকেই ইভিএম প্রহরায় দিনরাত কাটছে কংগ্রেস-সমাজবাদী পার্টি-বিএসপি নেতাকর্মীরা। উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জায়গা, চণ্ডীগড়, পাঞ্জাব, কর্ণাটক, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থানের মতো জায়গাগুলিতে নিয়ম করে চলছে চৌকিদারির কাজ। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঠায় বসে রয়েছেন কর্মীরা। দলের নেতারা নির্দেশ দিয়েছেন, তা তো পালন করতেই হবে।

[আরও পড়ুন: ‘সিংহের গুহায় ঢুকেছিলাম ভুল বোঝাতে’, RSS-এর অনুষ্ঠানে যোগ নিয়ে বললেন প্রণব]

উত্তপ্রদেশের মীরাট, মির্জাপুর, রায়বরেলিতে স্ট্রং রুমের সামনে রীতিমতো শিবির তৈরি হয়েছে। আট ঘণ্টা করে ৩ শিফটে কাজ করছেন দলীয় কর্মীরা। শিবিরেই আসছে খাবার দাবার। জমিয়ে খাওয়া দাওয়া সেরে খোলা আকাশের নিচে এই চৌকিদারি যেন পিকনিকের আকার নিয়েছে। মাঝে মাঝে আসছেন দলের বড় নেতারাও। ভোপালে যেমন গতরাতেই স্ট্রং রুমে প্রহরারত কর্মীদের সঙ্গে দেখা করেছেন ভোপালের কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিং। চণ্ডীগড়, অমৃতসরেও কংগ্রেস প্রার্থীরা পাহারা দিচ্ছেন স্ট্রং রুম। উত্তরপ্রদেশের কোথাও কোথাও আবার একই স্ট্রং রুমের সামনে তৈরি হয়েছে জোড়া ক্যাম্প। একটা মহাজোটের অপরটি কংগ্রেসের। নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেই চলছে ইভিএম চৌকিদারি। বিরোধীদের এই কাণ্ড দেখে অনেকেই বলছেন, মোদি গোটা দেশকেই চৌকিদারি শিখিয়ে দিলেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement