১৩ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোমবার মধ্যরাতে লোকসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। বিলটির পক্ষে ভোট পড়েছে ৩১১টি। বিপক্ষে ভোট পড়েছে মোটে ৮০টি। বিরোধীদের প্রবল বিরোধিতা সত্ত্বেও সংখ্যাবলে সহজেই বিল পাশ করিয়ে নিয়েছে বিজেপি। বিল পাশের পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।


বিল পাশের পর টুইটারে প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ” বিলটির বিভিন্ন দিক এত স্পষ্টভাবে তুলে ধরার জন্য আমি বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহকে। সম্মানীয় সাংসদদের তোলা বিভিন্ন প্রশ্নের বিস্তারিত জবাবও দিয়েছেন তিনি। আমি আনন্দিত যে, এত উচ্চস্তরীয় আলোচনার পর লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি পাশ হয়ে গিয়েছে। আমি ধন্যবাদ জানাব সেইসব দল ও সাংসসদদের, যাঁরা এই বিলটিকে সমর্থন করেছেন। বিলটি ভারতের প্রাচীন আস্থা এবং নীতিরই প্রতিফলন।”

[আরও পড়ুন: লোকসভায় পাশ বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ]


বিলটি পাশ হওয়ার আগে কংগ্রেসের তরফে একাধিক ইস্যুতে বিরোধিতা করা হয়। এই বিলকে সংবিধান বিরোধী এবং ধর্মীয় বিভাজন সৃষ্টিকারী বলে তোপ দাগে কংগ্রেস। একই সুর শোনা যায় তৃণমূলের কণ্ঠেও। অন্য বিরোধীরাও সরব হয় বিলের বিপক্ষে। কিন্তু, আশ্চর্যজনকভাবে ভোটাভুটির সময় দেখা যায় মাত্র ৮০টি ভোট বিপক্ষে পড়েছে। অন্যদিকে, সরকারপক্ষ বিলটি পাশ হওয়ার সময় ভোট পেল ৩১১টি। অথচ, বিলটি পেশ হওয়ার জন্য যখন ভোটাভুটি হল তখন বিরোধীরা পেয়েছিল ৮২টি ভোট। আর সরকারপক্ষ পেয়েছিল ২৯৩টি ভোট। মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে সরকারপক্ষের ভোট এতটা কীভাবে বাড়ল সেটাই চিন্তা বাড়াবে বিরোধী শিবিরের।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং