BREAKING NEWS

২২  মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘চাওয়ালা’র আমলে ভারত বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতি, মনমোহনের আমলে… তুলনা টানলেন মোদি

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: November 29, 2022 3:00 pm|    Updated: November 29, 2022 4:49 pm

PM Narendra Modi Says, Economy climbed up one position under an economist PM in 10 yrs but became fifth largest under a chaiwala | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং (Manmohan Singh) ছিলেন একজন অর্থনীতিবিদ। তার আমলে ভারতীয় অর্থনীতি বিশ্বের দশম বৃহত্তম অর্থনীতি হয়। ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রীর চেয়ার বসেন এক ‘চাওলা’। বর্তমানে ভারতীয় অর্থনীতি বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছে। সোমবার রাজকোটে (Rajkot) গুজরাট বিধানসভা ভোটের (Gujarat Assembly Poll) প্রচারে গিয়ে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi।

গুজরাটের মোট ১৮২টি বিধানসভা আসনের মধ্যে প্রথম দফায় নির্বাচন হবে ৮৯টি আসনে। ১ ডিসেম্বরে হবে ভোট। রাজকোটে বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে প্রচারে গিয়ে নিজের সঙ্গে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের শাসন আমলের তুলনা টানলেন মোদি। নিজের ভাষণে মোদি বলেন, “২০১৪ সালে আমি প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসার আগে ১০ বছর ক্ষমতায় ছিল কংগ্রেস (Congress)। ২০০৪ সালে যখন নামী অর্থনীতিবিদ (মনমোহন সিং) প্রধানমন্ত্রী হন তখন ভারত ছিল বিশ্বের ১১তম অর্থনীতি। পরবর্তী দশ বছরের কাজের ভিত্তিতে দশম বৃহত্তম অর্থনীতি হয় ভারত। “

[আরও পড়ুন: প্রার্থী না করায় অভিমানী রুপানি, দলের প্রচার এড়িয়ে যাচ্ছেন গুজরাটের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী]

মোদি জানান, নিজেকে অর্থনীতিবিদ মনে করেন না তিনি, দেশবাসীর শক্তিকে বিশ্বাস করেন। বলেন, “২০১৪ সালে এক ‘চাওলা’কে দায়িত্ব দিয়েছিলেন আপনারা। আমি কখন নিজেকে অর্থনীতিবিদ দাবি করিনি। কিন্তু দেশবাসীর শক্তির উপর আস্থা রেখেছি। গত ৮ বছরে দশম স্থান থেকে ভারতীয় অর্থনীতি বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হয়েছে।” আরও বলেন, “তাহলে আপনারাই তুলনা করুন। দশ বছরে দশ থেকে ১১তম স্থানে (কংগ্রেস আমলে) পৌঁছানো আর আট বছরে (বিজেপির শাসন আমলে) দশম থেকে পঞ্চম স্থানে।”

[আরও পড়ুন: জয় নিয়ে সংশয়, হার্দিক-জিগ্নেশদের কাছে এই ভোট ময়দান অচেনা]

একদিকে যখন গুজরাটে প্রচার চালাচ্ছেন খোদি প্রধানমন্ত্রী মোদি, তখন ভোট প্রচারে দেখা  যাচ্ছে না রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানিকে। আগেই কানাঘুঁষো ছিল ভোটে দাঁড়াতে চান না বলে কার্যত জোর করেই মুচলেখা লেখান হয়েছিল রুপানিকে দিয়ে। সেই কারণেই নাকি ক্ষোভে ও অভিমানে প্রচারে গা লাগাচ্ছেন না বিজয় রুপানি (Vijay Rupani)। এমনকী নিজের ছেড়ে আসা কেন্দ্র রাজকোট (Rajkot) পশ্চিমে দলের প্রার্থীর হয়ে প্রচারে দেখা যায়নি। শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী যেদিন প্রচারে আসেন সেইদিন কিছু সময়ের জন্য হাজির হন। বক্তব্যও রাখেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে