২২  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জাফরাবাদে অশান্তির খবর পেয়েও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ব্যস্ত পুলিশকর্তা! প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 1, 2020 10:24 am|    Updated: March 1, 2020 10:24 am

Protesters mobilised at Jafrabad, senior cops busy at ‘Hasya Kavi’ event

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছন্দে ফিরছে উত্তর-পূর্ব দিল্লি। অশান্তির আগুন নিভলেও তাপ এখনও অনুভূত হচ্ছে। কী হল, কেন হল, কাদের গাফিলতিতে প্রাণ হারালেন ৪৩ জন, তা নিয়ে কাঁটাছেড়া শুরু হয়েছে। ক্রমাগত পোস্টমর্টেমে উঠে আসছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। শুক্রবারই জানা গিয়েছিল কন্ট্রোল রুমে ফোনের পর ফোন এলেও সাড়া দেননি পুলিশ কর্তারা। উঠে এসেছে আরও এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। শনিবার রাতে জাফরাবাদে যখন CAA বিরোধী জমায়েত হচ্ছেন, ঠিক সেই সময় উত্তর-পূর্ব দিল্লির ডিসিপ সূর্য প্রকাশ বেদ এক কবিতা সম্মেলনে ব্যস্ত ছিলেন। যদিও দিল্লি পুলিশের সাফাই, খবর পেয়েই অনুষ্ঠান ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন পুলিশ কর্তা। পরিস্থিতি সামাল দিতে উপযুক্ত ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছিল। এদিকে হিংসা কবলিত এলাকায় মার্চ মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত স্কুলগুলি বন্ধ রাখার ঘোষণা করা হয়েছে। এমনকী পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে স্কুলের পরীক্ষাও।

অশান্তি থামার পর থেকেই চলছে দোষারোপ-পালটা দোষারোপের পালা। তবে ঠারেঠোরে সকলেই বুঝিয়ে দিচ্ছে দিল্লির পুলিশের আরও আগে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন ছিল। তাদের গাছাড়া মনোভাবের জন্যই কার্যত অশান্তির আগুন ছড়িয়ে পড়ে। শনিবার রাত থেকেই উত্তর-পূর্ব দিল্লির জাফরাবাদে CAA বিরোধী শ’পাঁচেক CAA বিরোধী বিক্ষোভকারী জড়ো হয়েছিলেন। রবিবার ওই এলাকায় CAA’র সমর্থনে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রর মিছিল করার কথা ছিল। তারই প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীরা জড়ো হতে শুরু করে।

[আরও পড়ুন : চেন্নাইয়ের রাসায়নিক গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ঘটনাস্থলে দমকলের ৫০টি ইঞ্জিন]

অন্যদিকে শনিবার অশোকনগরে ছিল পুলিশের অনুষ্ঠান, ‘হাস্য কবি সম্মেলন’। যেখানে পূর্ব দিল্লির পুলিশ কর্তা, আধিকারিক ও কর্মীদের উপস্থিত থাকার কথা ছিল। সেখানেই ছিলেন ডিসিপি বেদ প্রকাশ সূর্য। তবে জমায়েতের খবর পাওয়ামাত্রই নাকি তিনি অনুষ্ঠান ছেড়ে বেরিয়ে যান বলে জানিয়েছে যুগ্ম পুলিশ কমিশনার অলোক কুমার। তাঁর কথা, “খবর পাওয়ার পর সাড়ে আটটা নাগাদ অনুষ্ঠান থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন সূর্য প্রকাশ। সাড়ে দশটা নাগাদ প্রতিবাদীরা জড়ো হয়েছিলেন।” এদিকে রবিবার ডিসিপির সামনেই আন্দোলনকারীদের হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র। বিরোধীদের অভিযোগ, তৎক্ষণাৎ কপিল মিশ্রর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু তিনি তা করেননি। এ নিয়ে দিল্লি হাই কোর্টেও ভর্ৎসনার মুখে পড়েছিল দিল্লি পুলিশ।

[আরও পড়ুন : দিল্লির হিংসায় জ্বলেছে জওয়ানের বাড়ি, সহকর্মীর পাশে দাঁড়াল BSF]

অশান্তির দায় নিয়ে কাটাছেঁড়ার মাঝেই স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন দিল্লির বাসিন্দারা। চলছে উদ্ধারকাজ। উপদ্রুত এলাকার ঘরে ফিরছেন বাসিন্দারা। একইসঙ্গে শান্তি বজায় রাখতে এবং মানুষেরর পাশে থাকতে  পুলিশ, আধা সামরিকবাহিনীর জওয়ানরা রুটমার্চ করছে। তবে বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল-কলেজ। পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে পরীক্ষাও। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে