৬ ফাল্গুন  ১৪২৬  বুধবার ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জীবনের সায়াহ্নে দাঁড়িয়ে অভিনব নজির গড়লেন রাজস্থানের এক বৃদ্ধা। সেঞ্চুরির একদম দোরগোড়ায় এসে, ৯৭ বছর বয়সে গ্রামের প্রধান হলেন তিনি। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের সিকর জেলায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাজস্থানে প্রথম দফার পঞ্চায়েত নির্বাচন (Panchayat Election) ছিল। দিনভর ভোট গ্রহণের পর বিকেলে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। তাতে দেখা যায়, সিকর জেলার নিম কা থানা মহকুমার পুরানাওয়াস গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান পদে নির্বাচিত হয়েছেন ৯৭ বছরের বিদ্যা দেবী। নিজের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আরতি মীনাকে ২০৭ ভোটে পরাজিত করেছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘সাভারকরকে ভারতরত্ন দেওয়ার বিরোধীদের আন্দামান জেলে পাঠানো হোক’, মন্তব্য সঞ্জয় রাউতের ]

 

এপ্রসঙ্গে স্থানীয় মহকুমাশাসক সাধুরাম জাট বলেন, ‘পুরানাওয়াস গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় মোট ৪ হাজার ২০০ জন ভোটার আছে। এবার গ্রাম পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রধান পদে ১১ জন লড়াই করছিলেন। শুক্রবার তাঁদের ভোট দিতে মোট ২ হাজার ৮৫৬ জন এসেছিলেন। ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর দেখা যায়, বিদ্যা দেবী ৮৪৩টি ভোট পেয়েছেন। আর আরতি মীনা পেয়েছেন ৬৩৬টি ভোট। ১৯৯০ সালের আগে বিদ্যা দেবীর স্বামী এই পঞ্চায়েতে ২৫ বছর ধরে প্রধানও ছিলেন।’

[আরও পড়ুন: জন্মস্থান বিতর্কে রবিবার থেকে বন্ধ হচ্ছে শিরডির সাঁইবাবার মন্দির! ]

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রাজস্থানের প্রথম দফার পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৮৭টি পঞ্চায়েত সমিতির ২,৭২৬টি গ্রাম পঞ্চায়েতের ২৬,৮০০টি ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণ হয়। এখানে মোট ৯৩ লক্ষ ২০ হাজার ৬৮৪টি ভোটার আছেন। যাঁদের মধ্যে ৪৮ লক্ষ ৪৯ হাজার ২৩২ জন পুরুষ ও ৪৪ লক্ষ ৭১ হাজার ৪০৫ জন মহিলা ছিলেন। আর এই নির্বাচনে ১৭ হাজার ২৪২ জন গ্রাম প্রধান পদে ৪২ হাজার জন পঞ্চায়েত সদস্য পদের জন্য লড়াই করেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং