BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মোবাইল চুরির অভিযোগ, রাজস্থানে বেধড়ক মারধর দলিত বৃদ্ধকে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 15, 2020 3:32 pm|    Updated: March 15, 2020 4:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দলিত সম্প্রদায়ের মানুষদের উপর আক্রমণের ঘটনা বেড়েই চলেছে রাজস্থানে। গতল দু-তিন মাসে বিভিন্ন অভিযোগে প্রায় ১০ জন দলিত সম্প্রদায়ের মানুষকে মারধর করার ঘটনা ঘটল। সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে ৭০ বছরের এক বৃদ্ধকে বেধড়ক মারধর করতে দেখে চমকে উঠেছেন সবাই। নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসনও। এই ঘটনায় অভিযুক্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করতে তল্লাশি চালানো হলেও এখনও পর্যন্ত কেউ ধরা পড়েনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৪ মার্চ ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের সিকর (Sikar) জেলায়। এক পুলিশ কনস্টেবলের বাবা ৭০ বছর বয়সী মদনলাল মীনা একটি মেলায় ঘুরতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে জোর করে তাঁকে নিম কা থানা বাইপাস এলাকার একটি নির্জন জায়গা নিয়ে যায় পাঁচজন ব্যক্তি। তারপর তিনি মোবাইল চুরি করেছেন এই অভিযোগ জানিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এমনকী মোবাইলে এই ঘটনার ভিডিও তুলে রাখে। ওই বৃদ্ধ মোবাইল চুরি করেননি বলে বারবার জানালেও কোনও ভ্রুক্ষেপ করা হয়নি। পরে যন্ত্রণা সহ্য না করতে পেরে অচৈতন্য হয়ে পড়েন তিনি। বহুক্ষণ বাদে তাঁকে এই অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে হাসপাতালে নিয়ে যান কিছু মানুষ। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে জয়পুরের সোয়াই মানসিং হাসপাতালে ভরতি করা হয়।

[আরও পড়ুন: করোনা রুখতে অক্লান্ত লড়াই, দেশের কাছে অনুপ্রেরণা কেরলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ‘শৈলজা টিচার’]

 

এদিকে পাঁচই মার্চ ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরেই মদনলাল মীনার ছেলে কানারাম সেটি দেখতে পান। তবে দিল্লিতে কর্তব্যরত থাকার কারণেই সেই মুহূর্তে কোনও পদক্ষেপ নিতে পারেননি। পরে এলাকায় ফিরে এই বিষয়ে স্থানীয় থানায় একটি এফআইআর দায়ের করেন। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হলেও এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। অন্যদিকে বেধড়ক মারধরের জেরে ওই বৃদ্ধের পিছন দিকের হাড় পুরোপুরি ভেঙে গিয়েছে। তাই সেখানে ধাতব রড লাগানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: বিধায়করা বিজেপির ‘খপ্পরে’, উদ্ধার করতে অমিত শাহকেই চিঠি কমল নাথের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement