BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতে করোনার বলি আরও ১, দিল্লির জনকপুরীতে মৃত্যু ষাটোর্ধ্ব মহিলার

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 14, 2020 8:40 am|    Updated: March 14, 2020 8:40 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বলি হলেন আরও এক ভারতীয়। কর্নাটকের কালবুর্গির পর এবার প্রাণহানির খবর এল দিল্লির জনকপুরী থেকে। শুক্রবার রাতে Covid-19-এ আক্রান্ত হয়ে ৬৮ বছরের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়।

করোনা আক্রান্ত হয়ে তিনি ভরতি ছিলেন রামমনোহর লোহিয়া হাসপাতালে। বৃদ্ধার ছেলেও করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি। ছেলে ফেব্রুয়ারি মাসের গোড়ায় সুইজারল্যান্ড এবং ইতালি গিয়েছিলেন। ২৩ ফেব্রুয়ারি তিনি জ্বর ও কাশি নিয়ে দেশে ফিরে আসেন। বিদেশ থেকেই তিনি করোনায় আক্রান্ত হন বলে মনে করা হচ্ছে। ছেলের থেকেই সংক্রমণ হয় মৃত বৃদ্ধার। গত ৭ মার্চ জ্বর এবং কাশি নিয়ে বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল। ৯ মার্চ তাঁর অবস্থার অবনতি হয়। ভেন্টিলেশনে দিতে হয় তাঁকে। সেদিন পরীক্ষার পর তাঁর শরীরে করোনা ভাইরাস মেলে। বৃদ্ধা ডায়বেটিস ও হাই প্রেশারের রোগী ছিলেন। শুক্রবার হাসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়।

[ আরও পড়ুন: অর্ণব গোস্বামীর সঙ্গে ‘অভব্য’ আচরণের জের, কুণাল কামরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি ভিস্তারার ]

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রটোকল মেনে মৃত মহিলার বাড়ির লোকেদের কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার কর্ণাটকের কালবুর্গি থেকে দেশে করোনায় মৃত্যুর প্রথম খবরটি মেলে। কর্নাটকে করোনায় মৃত ৭৬ বছরের বৃদ্ধ সৌদি আরব থেকে ফিরেছিলেন। মঙ্গলবার তাঁর মৃত্যু হলেও বৃহস্পতিবার তাঁর শরীরের নমুনার পরীক্ষার রিপোর্টটি মেলে। পরপর দু’দিন করোনায় দেশে দু’টি মৃত্যুর খবর আসাতে আতঙ্ক তীব্র হয়েছে। রাজ্যে রাজ্যে বন্ধ হচ্ছে স্কুল-কলেজ-শপিং মল। পিছোচ্ছে ম‌্যাচ, পরীক্ষা, অনুষ্ঠান। শূন‌্য এজলাসে জরুরি মামলার শুনানি হবে বলে ঘোষণা করছে সুপ্রিম কোর্ট। বেড়ে চলেছে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও। শুক্রবার পর্যন্ত Covid-19-এ আক্রান্তের সংখ‌্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮২। এর মধ্যে ভারতীয় ৬৪ জন। ইতালীয় ১৬ জন, ১ জন কানাডার নাগরিক।

করোনার বিশ্বব‌্যাপী ছবিটা অবশ‌্য আরও ভয়ংকর। ইতিমধ্যেই পৃথিবীজুড়ে করোনায় মৃতের সংখ‌্যা ৫,০০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। আক্রান্ত প্রায় ১ লক্ষ ২৭ হাজার। শুক্রবার করোনা রুখতে আমেরিকায় জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফেডারেল তহবিল থেকে পাঁচ হাজার কোটি মার্কিন ডলার খরচ করতেই এই জরুরি অবস্থা। জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে স্পেনেও। প্যারিসে বন্ধ রাখা হয়েছে আইফেল টাওয়ার। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এদিন জানিয়েছে, করোনার উৎকেন্দ্র এখন চিন থেকে সরে ইউরোপে এসে দাঁড়িয়েছে। ইউরোপে প্রতিদিন করোনা আক্রান্তদের মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

[ আরও পড়ুন: ডিএ বৃদ্ধি কেন্দ্রের, মার্চের বেতনের সঙ্গেই কর্মীরা হাতে পাবেন বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement