BREAKING NEWS

১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ালে রেয়াত নয়, করোনা নিয়ে কেন্দ্রকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 31, 2020 4:56 pm|    Updated: March 31, 2020 4:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা নিয়ে গুজব ছড়ালে কড়া ব্যবস্থা নেবে দেশের শীর্ষ আদালত। আজ কেন্দ্রকে নোটিস দিয়ে এমনটাই জানাল সুপ্রিম কোর্ট। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ার ভুল তথ্য প্রচারের জেরে নানা সমস্যা দেখা দিয়েছে রাজ্যগুলিতে। তাই কড়া মনোভাব পোষণের নির্দেশ কেন্দ্রকে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন সকলে। যোগাযোগের অন্যতম প্রধান মাধ্যমও হয়ে উঠেছে ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ। কিন্তু কিছু অসাধু মানুষের চক্রান্তে এই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ছে দ্রুত। ফলে বাড়িতে বন্দিদশায় থেকে নাজেহাল হচ্ছেন মানুষ। আরা তারা এই সব ভুল তথ্যই বিশ্বাস করে ফেলছেন। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় যাতে ভুল খবর না ছড়ায় সেই বিষয়ে কেন্দ্রকে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। লকডাউনে সোশ্যাল মিডিয়ার ভূমিকা কী এই নিয়ে কেন্দ্রকে প্রশ্ন করে দেশের শীর্ষ আদালত। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মিথ্যে খবর রোধে কেন্দ্রকে সাংবাদিক সম্মেলন করে নিজেদের পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করতে বলে দেশের শীর্ষ আদালত। কেউ যদি দেশের এই পরিস্থতি নিয়ে বা কেন্দ্রের নাম করে কোনও ভুল তথ্য প্রচার করে তাহলে তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশও দেয় সুপ্রিম কোর্ট। করোনা সংক্রান্ত কোনও কৌতুহল থাকলে জনসাধারণকে কেন্দ্রীয় সরকারের উল্লিখিত সাইটগুলিতে গিয়েও তথ্য জেনে নেওয়ার পরামর্শ দেয়  দেশের শীর্ষ আদালত। 

[আরও পড়ুন: করোনার জের, বাড়ল ড্রাইভিং লাইসেন্স, যানবাহন রেজিস্ট্রির সময়সীমা]

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুল তথ্য প্রচার করার জন্য কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবারই ব্যক্তিগত আক্রোশ মেটাতে এক মহিলা সোশ্যাল সাইটে অন্য এক মহিলার বিরুদ্ধে করোনা আক্রান্ত বলে মিথ্যে প্রচার চালায়। এরকম ঘটনা পুনরায় ঘটলে সেই বিষয়ে কড়া মনোভাব পোষণ করার কথা ঘোষণা করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুম্বইতেও এক ব্যক্তি ভুল তথ্য প্রচার করায় তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। 

[আরও পড়ুন: মানবিক মিমি, নিজে কোয়ারেন্টাইনে থেকেও পথ কুকুরদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা সাংসদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement