BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মালিকপক্ষকে বাড়তি সুবিধা? সংসদের বাদল অধিবেশনেই আমূল বদলে যেতে পারে শ্রম আইন

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 9, 2020 5:44 pm|    Updated: September 9, 2020 5:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার ‘অজুহাতে’ দেশের শ্রম আইনে আমূল বদল আনতে পারে কেন্দ্র। বেশ কিছুদিন ধরেই এই জল্পনা শোনা যাচ্ছিল। এবার তা বাস্তবে রূপ পেতে চলেছে। সূত্রের খবর, সংসদের বাদল অধিবেশনেই শ্রম আইনে নতুন তিনটি বিধি (Labour Code) যোগ করতে চলেছে কেন্দ্র। যা এই আইনকে আমূল বদলে দেবে। নতুন এই ধারাগুলির রূপরেখে এখনও স্পষ্ট করে জানা না গেলেও, মনে করা হচ্ছে করোনা আবহে শিল্পকে চাঙ্গা করতে মালিকপক্ষকে বাড়তি সুবিধা দিতে চায় সরকার।

শ্রম আইনে বদলের চেষ্টাটা অবশ্য গতবছর জুনেই শুরু হয়েছে। তখনই এই আইনের ৪৪টি বিধি কমিয়ে চারটি করার পরিকল্পনা নিয়েছিল কেন্দ্র। সেই চারটির মধ্যে ন্যূনতম বেতন, বোনাস, সমকাজে সমবেতনের মতো কয়েকটি বিধিকে জুড়ে যে বেতন বিধি তৈরি করা হয়েছিল, তা ইতিমধ্যেই সংসদে পাশ হয়েছে। বাকি আরও তিনটি এই ধরনের বিধি। সেগুলিই এবারের বাদল অধিবেশনে নতুন করে পেশ করা হতে পারে। সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই নতুন তিনটি বিধি নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা হয়ে গিয়েছে। সুত্রের খবর, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা এই তিনটি বিধি সংসদে পেশ করার অনুমতিও দিয়ে দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘করোনার উপর নয়, অপরিকল্পিত লকডাউন দেশের গরিবদের উপর আক্রমণ’, তোপ রাহুলের]

যে তিনটি বিধি নতুন করে শ্রম আইনে (Labour Law) যুক্ত করা হবে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, সামাজিক সুরক্ষা বিধি। এই বিধির অধীনে প্রভিডেন্ট ফান্ড, বিমা এবং মাতৃত্বকালীন সুবিধায় বেশ কিছু বদল আসতে পারে। সূত্রের খবর, মালিকপক্ষের খরচ কমানোর লক্ষ্যেই এই বদল। নতুন বিধিগুলির দ্বিতীয়টি মালিক-শ্রমিক সম্পর্ক নিয়ে তৈরি হয়েছে। এর মাধ্যমে শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া, ট্রেড ইউনিয়নগুলির এক্তিয়ার প্রভৃতি নিয়ন্ত্রণ করা হবে। শেষ বিধিটি হল পেশাগত স্বাস্থ্য এবং সুরক্ষা বিধি। এতে মূলত শ্রমিকদের সুরক্ষা এবং তাঁদের অন্যান্য সুবিধাগুলি কীভাবে নিয়ন্ত্রিত হবে, সেটা নির্ধারণ করা হবে।

[আরও পড়ুন: অর্থনীতি সংকুচিত হবে ১০ শতাংশেরও বেশি, ভারতের জিডিপি নিয়ে পূর্বাভাস ফিচের]

বস্তুত, করোনা (CoronaVirus) পরবর্তী সময়ে অর্থনীতিকে ফের সুদৃঢ় করতে শ্রম আইনে পরিবর্তন আনার পরিকল্পনা করছে কেন্দ্র। শিল্পকারখানার মালিকদের উপর বোঝা কমাতে শ্রমিকদের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা সংক্রান্ত একাধিক গাইডলাইন শিথিল করার পক্ষে সরকার। প্রয়োজনে কাজের সময়ও বাড়ানো হতে পারে। যা শ্রম আইনের পরিপন্থী। কংগ্রেস (Congress) দলগতভাবে আগেও এর বিরোধিতা করছে। শোনা যাচ্ছে সংসদের অধিবেশনেও কংগ্রেস এই নতুন বিধিগুলির বিরোধিতাই করবে। তবে সংসদে বিজেপির যা শক্তি তাতে, এই আইন পাশ হতে কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement