১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তিন তালাক ইস্যুতে ঐক্যমত নয়, ফের সংসদে থমকে গেল বিল

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 10, 2018 3:54 pm|    Updated: August 11, 2018 9:33 am

Triple talaq bill stalled in Parliament

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এনডিএ সরকারের শেষ বাদল অধিবেশনেও আইনে পরিণত হল না তিন তালাক বিল। বাদল অধিবেশনের শেষদিন শুক্রবার রাজ্যসভায় বিল নিয়ে আলোচনার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে আসে সরকার। রাজ্যসভার চেয়ারম্যান তথা উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু ঘোষণা করেন বাদল অধিবেশনে নয়, তিন তালাক বিল পেশ হবে শীতকালীন অধিবেশনে। শীতকালীন অধিবেশনই মোদি সরকারের শেষ সুযোগ বিলটি পাশ করানোর জন্য।

[মুসলিমকে বিয়ে, বাঙালি মহিলার শ্রাদ্ধের অনুমতি দিল না দিল্লির কালীমন্দির]

অধিবেশনের শেষদিনে বিল পেশ নিয়ে শুরু থেকেই আপত্তি ছিল বিরোধীদের। সংসদের নিয়ম অনুযায়ী শুক্রবার দুপুর আড়াইটের পর গুরুত্বপূর্ণ কোনও বিল পেশ করা যায় না রাজ্যসভায়। তা সত্ত্বেও সরকার অনড় ছিল বিল পেশ করার সিদ্ধান্তে। প্রয়োজনে অধিবেশনের দৈর্ঘ্য একদিন বাড়িয়ে দেওয়া হতে পারে বলেও ইঙ্গিত মিলেছিল সরকারের তরফে। বিরোধী শিবির যদিও, সরকারের এই অযথা তাড়াহুড়ের কোনও অর্থ খুঁজে পাচ্ছিল না। বিরোধীদের দাবি ছিল, প্রস্তাবিত সংশোধনী এনে স্ট্যান্ডিং কমিটিতে আলোচনার পর পরের অধিবেশনে পেশ করা হোক বিল। শেষপর্যন্ত তেমনটাই করতে হল সরকারকে।

বিল পেশ করার জন্য গত দুদিনে তিনটি সংশোধনী এনেছিল মোদি সরকার। প্রথম সংশোধনীতে বলা ছিল, শুধুমাত্র ভুক্তভোগী মহিলা এবং তাঁর নিকট আত্মীয়রাই শুধুমাত্র তিন তালাকের বিরুদ্ধে মামলা করতে পারবেন। দ্বিতীয় সংশোধনীতে বলা হয়েছিল, তিন তালাকের পরে যদি ফের নতুন করে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বোঝাপড়া তৈরি হয় এবং তাঁরা ফের একসঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নেন সেক্ষেত্রে মামলা তুলে নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে স্ত্রীকে। তৃতীয় পরিবর্তনটি ছিল, তিন তালাক মামলায় অভিযুক্তকে জামিন দিতে পারবেন ম্যাজিস্ট্রেট, প্রাথমিকভাবে যে বিলটি সরকার পেশ করেছিল সেই বিলে এই তিন আইনের কোনওটিই ছিল না।

[বিজেপি-বিরোধী মহাজোটে ধাক্কা, শামিল হচ্ছে না কেজরিওয়ালের আপ]

তিনটি সংশোধনী আসার পরও বিল পাশ করানো নিয়ে সংশয় ছিল শাসক শিবিরে। কারণ বিরোধীদের অনেকেই চাইছিলেন না এই অধিবেশনে বিল পাশ হোক। এদিন সকাল থেকেই রাজ্যসভায় রাফালে ইস্যু নিয়ে সরকার বিরোধিতায় সরব হয় বিরোধীরা। বিরোধী সাংসদদের হট্টগোলে মুলতুবি করে দিতে হয় অধিবেশন। অধিবেশন শুরু হতেই ফের হট্টগোল শুরু হয়। হট্টোগোলের মধ্যেই চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নায়ডু ঘোষণা করেন এই অধিবেশনে বিল নিয়ে আলোচনা হচ্ছে না। সরকারের অভিযোগ, বিরোধীদের অসহযোগিতার কারণেই বিল পাশ করানো গেল না। যদিও বিজেপি সূত্রের খবর, বিল পাশ করানো নিয়ে এখন আগের তুলনায় অনেকটাই নমনীয় সরকার। আগামীদিনে আরও কিছু সংশোধনী এনে শীতকালীন অধিবেশনে আবার পেশ করা হবে যাতে বিরোধীদের আর কোনও আপত্তির জায়গা না থাকে। মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তাদের প্রাথমিক এজেন্ডা ছিল তিন তালাক বিলকে আইনে পরিণত করা। কিন্তু চারবছরেও তা সম্ভব হল না, এতে রাজনৈতিকভাবে বেশ খানিকটা অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছে বিজেপি। তবে, ভোটের আগে আগে যদি বিল পাশ করানো যায় তাহলে ফের অ্যাডভান্টেজ পেয়ে যেতে পারে গেরুয়া শিবির।   

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে