BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মুসলিমদের ধ্বংস করতে চাইলে মোদিকে ভোট দিন, বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি নেতার

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 19, 2019 5:27 pm|    Updated: April 28, 2019 12:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচন শুরুর পর থেকেই বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে। কারওর কারওর বিরুদ্ধে কমিশন ব্যবস্থা নিতে সক্ষম হলেও এই প্রবণতাকে কোনওভাবেই দমাতে পারছে না তারা। এবার মুসলিমদের ধ্বংস করতে চাইলে নরেন্দ্র মোদিকে ভোট দেওয়ার কথা বলে নতুন বিতর্ক তৈরি করলেন উত্তরপ্রদেশের এক বিজেপি নেতা।

[আরও পড়ুন-‘আমার অভিশাপেই মৃত্যু হেমন্ত কারকারের’, বিতর্কিত মন্তব্য সাধ্বী প্রজ্ঞার]

মুসলিমদের ধ্বংস করতে চাইলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ভোট দিন। বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের বারাবাঁকিতে একটি নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই মন্তব্যই করলেন বিজেপি নেতা রঞ্জিত বাহাদুর শ্রীবাস্তব। তাঁর এই বক্তব্যের কথা প্রকাশ্যে আসার পরে বিতর্ক শুরু হয়েছে দেশজুড়ে। বিরোধীরা বলছে, ওনার কোনও দোষ নেই। বিজেপির অন্দরমহলের আলোচনাই প্রকাশ করে ফেলেছেন উনি।

[আরও পড়ুন-বায়োপিক নিয়ে খোঁচা, উর্মিলাকে আক্রমণ সেলুলয়েডের মোদির]

তিনি বলেন, “গত পাঁচ বছরে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের মনোবল ভাঙতে অনেক চেষ্টা চালিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাই আপনারা যদি মুসলিমদের ধ্বংস করতে চান তাহলে নরেন্দ্র মোদিকে ভোট দিন। দেশভাগের পর থেকেই ভারতে মুসলিমদের জনসংখ্যা দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে। এরপর আস্তে আস্তে ভোটদানের মাধ্যমে এই দেশের ক্ষমতা নিজেদের কুক্ষিগত করতে চাইছে তারা। এখনই না আটকানো গেলে একদিন তাতে সফলও হবে।”

[আরও পড়ুন-আত্মসম্মান খোয়াতে পারবেন না, কংগ্রেস ছেড়ে শিব সেনায় প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী]

এপ্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “লোকসভা নির্বাচনের পর চিন থেকে দাড়ি কাটার মেশিন নিয়ে আসা হবে। তারপর সেই মেশিন দিয়ে কাটা হবে ১০ থেকে ১২ হাজার মুসলিমের দাড়ি। তারপর তাদের জোর করে হিন্দুধর্ম গ্রহণ করতে বাধ্য করা হবে। কিন্তু, যদি নরেন্দ্র মোদি বা বিজেপি ভোট না দেন তাহলে এর উলটোটাও ঘটতে পারে আপনাদের সঙ্গে। তাই ওই ধরনের অবস্থা থেকে নিজেদের রক্ষা করতে এবং মুসলিমদের ধ্বংস করতে মোদি ও বিজেপিকে ভোট দিন।” বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় উত্তরপ্রদেশে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণের হার ছিল ৬৭.৫৫ শতাংশ। এখনও বাকি পাঁচ দফায় ৬৪টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement