১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কর্মহীনদের বিনামূল্যে খাবার ও টাকা দেওয়া হোক, মানবিক আরজি নিয়ে মোদিকে চিঠি অধীরের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 16, 2021 7:59 pm|    Updated: May 16, 2021 9:07 pm

Adhir Ranjan Chowdhury writes letter to PM Modi appealing to help jobless people with cash and food for free during lockdown |Sangbad Pratidin

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: করোনার (Coronavirus) দ্বিতীয় ধাক্কা সামলাতে দেশের বিভিন্ন রাজ্য ফের হেঁটেছে লকডাউনের পথে। পশ্চিমবঙ্গেও প্রায় তেমনই পরিস্থিতি। আগামী ১৫ দিন এখানে কার্যত লকডাউন। এই অবস্থায় সম্পূর্ণ বন্ধ বিভিন্ন কর্মক্ষেত্র। কর্মহারা বহু মানুষ। এবার তাঁদের পাশে দাঁড়াতে চেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (PM Narendra Modi) চিঠি পাঠালেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury)।

রবিবার প্রধানমন্ত্রী মোদিকে চিঠি পাঠিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। তাতে তিনি সাম্প্রতিক লকডাউন (Lockdown) পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে লেখেন, বহু মানুষ কাজ হারিয়েছেন এই অবস্থায়। তাঁরা অত্যন্ত সমস্যার মধ্যে দিনাতিপাত করতে কার্যত বাধ্য হচ্ছেন। আগের বছরও দেশে লকডাউনের সময়ে এভাবেই সংগ্রাম করতে হয়েছিল তাঁদের। এবার দেশের দরিদ্র এবং কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়াতে নতুন পরিকল্পনা করেছে কংগ্রেস। দলের সর্বভারতীয় সভাপতির পরামর্শক্রমে অধীর চৌধুরীর আবেদন, কর্মহীন মানুষদের হাতে মাসে সরাসরি ৬০০০টাকা এবং বিনামূল্যে খাবার দেওয়া হোক। এই টাকা প্রতি মাসে তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি দিলে তার সুবিধা ভোগ করতে পারবেন, সংসার চালানো সহজ হবে।

[আরও পডুন: সাতসকালে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ কলকাতার ব্যবসায়ী, দ্বিতীয় হুগলি সেতু থেকে উদ্ধার গাড়ি] 

প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে কংগ্রেস সাংসদের আরও বক্তব্য, জনগণের কল্যাণে এবং দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কংগ্রেসের এই পরিকল্পনা একমাত্র কেন্দ্রের হাত ধরেই বাস্তবায়িত হতে পারে। এক্ষেত্রে সকলে হাত হাত মিলিয়ে কাজ করার কথাও জানিয়েছেন অধীর চৌধুরী। তাঁর আবেদন, পশ্চিমবঙ্গ-সহ লকডাউনের আওতায় থাকা অন্যান্য রাজ্যের জন্য যদি কেন্দ্র এই আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়, তাহলে এই সংকটকালে হাজার হাজার মানুষ উপকৃত হবেন। শুধু তাই নয়, দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিরও অবনতি হবে না বলে মনে করেন অধীর চৌধুরী। নিঃসন্দেহে একজন প্রকৃত জনপ্রতিনিধির মতোই বহরমপুরের সাংসদের এই আবেদন। তবে তাঁর এই মানবিক আবেদনে কেন্দ্র কত দ্রুত সাড়া দেয়, সেটাই দেখার।

[আরও পডুন: এবার পণ্য পরিবহণের জন্য লাগবে ই-পাস, জেনে নিন আবেদনের পদ্ধতি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে