BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বেসরকারি সংস্থাগুলি কর্মীদের উপস্থিতি ৫০% করুন’, করোনা মোকাবিলায় পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: March 20, 2020 3:50 pm|    Updated: March 20, 2020 3:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৩১ মার্চ পর্যন্ত ৫০ শতাংশ সরকারি কর্মী ই-অফিসে কাজ করবেন, শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বেসরকারি সংস্থার কর্মীদের উপস্থিতির হার ৫০ শতাংশ করার পরামর্শ দেন তিনি। সেইসঙ্গে বিশেষ তহবিলের কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশপাশি, কোনও সাহায্য মেলেনি তা জানিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে।

ক্রমশ ভয়াবহ হচ্ছে দেশের পরিস্থিতি। গত ২৪ ঘণ্টায় লাফিয়ে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী মৃতের সংখ্যা ৫। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে রাজ্যবাসীকে সচেতন করতে শুক্রবার দুপুরে ফের নবান্নে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই বেসরকারি সংস্থার কর্মীদের হাজিরা ৫০ শতাংশ করার পরামর্শ দেন তিনি। প্রয়োজনে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-এর ব্যবস্থার কথাও বলেন। করোনা মোকাবিলায় এদিন তহবিল তৈরির কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সাড়ে ৭ কোটি মানুষকে আগামী ছ’মাস ২ টাকার চাল, ডাল, গম বিনামূল্যে দেওয়া হবে। এদিন ফের সকলকে স্যানিটাইজার ও মাস্ক ব্যাবহারের পরামর্শ দেন তিনি। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে মাস্কের পরিবর্তে কাপড় ব্যবহারের কথাও বলেন। ঘর থেকে না বেরনোর কথাও বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: করোনা সতর্কতা: জমায়েত এড়াতে এবার মতুয়া মেলা বন্ধের নির্দেশ দিল কলকাতা হাই কোর্ট ]

পরপর শহরের দুই করোনা আক্রান্তের কীর্তি প্রকাশ্যে আসার পর বিদেশ ফেরত এরাজ্যের বাসিন্দাদের প্রয়োজনে জোরপূর্বক ঘরবন্দি করা হবে বলে জানান তিনি। অযথা আতঙ্ক না করে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন মুখ্যমন্ত্রী। ক্ষোভ উগরে দেন কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। প্রসঙ্গত, মহামারি করোনায় ত্রস্ত গোটা বিশ্ব। ভারতে সরকারিভাবে লক ডাউন ঘোষণা করা হয়নি ঠিকই কিন্ত অনেকেই বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন না। তবে চিকিৎসক মহলের দাবি, দেশে এখনও সমষ্টিগত সংক্রমণ ছড়ায়নি। তবে চরম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। তারপরেও বাড়ছে আক্রান্তে সংখ্যা। এপর্যন্ত দেশে মৃতের সংখ্যা ৫।

[আরও পড়ুন: করোনা সতর্কতার মাঝেও CAA’র সমর্থনে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার, বিতর্কে বিজেপি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement