২৯ চৈত্র  ১৪২৭  সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কলকাতার চাঁদনি চকের বহুতলে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড, ধোঁয়ায় ঢাকল এলাকা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 2, 2021 8:14 pm|    Updated: April 2, 2021 9:27 pm

An Images

ছবি: সুপর্ণা মজুমদার

শুভজিৎ মণ্ডল: কলকাতার (Kolkata) চাঁদনি চকের একটি বহুতলে বৈদ্যুতিন সামগ্রীর গুদামে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড। ঘটনাস্থলে দমকলের ৮টি ইঞ্জিন। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার কাজ শুরু করেছে দমকল। তবে ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় বেশ বেগ পেতে হচ্ছে আধিকারিকদের। 

কলকাতার ব্যস্ততম এলাকাগুলির মধ্যে একটি চাঁদনি চক। শুক্রবার সন্ধে পৌনে ৮ টা নাগাদ ই-মল সংলগ্ন ওই বহুতল থেকে ধোঁয়া বেরতে দেখেন স্থানীয়রা। সাদা ধোঁয়ায় ঢেকে যায় আকাশ। বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে পড়তেই খবর দেওয়া হয় দমকলে। প্রথমে ঘটনাস্থলে যায় ৫ টি ইঞ্জিন। এলাক ঘিঞ্জি হওয়ায় প্রবল সমস্যায় পড়তে হয় দমকল কর্মীদের। এদিকে ওই গুদামে বৈদ্যুতিন সামগ্রী মজুত থাকায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে আগুন। পাশের বহুতলে আগুন ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করে পথে নেমে পড়েন বহু মানুষ। কার্যত ভিড় হয়ে যায় ওই এলাকায়। এদিকে আগুনের তীব্রতা বাড়তে থাকায় আরও তিনটি ইঞ্জিন পৌঁছয় ঘটনাস্থলে। অর্থাৎ সব মিলিয়ে বর্তমানে ঘটনাস্থলে রয়েছে ৮টি ইঞ্জিন।ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান চৌরঙ্গির বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন তিনি। দমকলের বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় আয়ত্তে আসে পরিস্থিতি। তবে কী থেকে এই অগ্নিকাণ্ড তা এখনও জানা যায়নি।

ছবি: সুপর্ণা মজুমদার

আরও পড়ুন: ‘দিদি ভোটে হারছে বুঝেই রাজ্যপালের পা ধরছেন’, মমতাকে কটাক্ষ অধীর চৌধুরীর

উল্লেখ্য, এদিনই বেলা ১২টা নাগাদ আচমকাই আগুন লাগে লেনিন সরণির একটি পাখার গুদামে। ধোঁয়া বেরতে দেখে  মুহূর্তে খবর দেওয়া হয় দমকলে। কিন্তু দমকল পৌঁছনোর আগেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে। গোটা এলাকা কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। এদিকে, ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় আগুন আরও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা ছিল। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় আয়ত্তে আসে পরিস্থিতি। একইদিনে জোড়া অগ্নিকাণ্ডে রীতিমতো আতঙ্কে স্থানীয়রা।

দেখুন ভিডিও: 

[আরও পড়ুন: ভোটের মরশুমে রাজ্যে ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা, ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ১৭৩৩ জন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement