১৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

চাপের মুখে বন্ধ বিয়ের আসর, গার্ডেনরিচের স্কুলে কড়া নিরাপত্তায় চলছে স্পোর্টস

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: January 23, 2020 2:24 pm|    Updated: January 23, 2020 2:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চাপে পড়ে পিছু হটতে বাধ্য হলেন কাউন্সিলর। অনুষ্ঠান বাড়ি হিসেবে স্কুল বিল্ডিং ভাড়া দেওয়ায় স্পোর্টস নিয়ে অনিশ্চিয়তা তৈরি হয়েছিল গার্ডেনরিচের আর্য পরিষদ স্কুলে। সংবাদ মাধ্যমে খবরের জেরে পিছু হটলেন অভিযুক্তরা। পুলিশের উপস্থিতিতে পূর্ব নির্ধারিত সময়েই স্কুলে শুরু হল ক্রীড়া প্রতিযোগিতা।

মূলত আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে পড়া পড়ুয়াদের কথা ভেবেই গার্ডেনরিচের এই আর্য পরিষদ স্কুলে একটি ভবন তৈরি করেছিলেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। শিক্ষকদের বেতন থেকে পড়ুয়াদের বই-খাতা এই সব কিছুই হয় আর্থিক সাহায্যে। অভিযোগ উঠতে শুরু করে যে দীর্ঘদিন ধরেই স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই বিভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠানের জন্য স্কুল ভাড়া দিচ্ছেন কাউন্সিলর রাম পেয়ারি রাম। স্কুল জুড়ে তৈরি করা হয় প্যান্ডেল। আটকে দেওয়া হয় স্কুলের গেট। ফলে বিদ্যালয়ে গিয়েও বাড়ি ফিরতে হয় পড়ুয়াদের। একাধিকবার এবিষয়ে অভিযোগ জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। এই পরিস্থিতিতে অশান্তি বিশাল আকার নেয় মঙ্গলবার। বুধবার স্কুলের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। মঙ্গলবার ছিল শেষ মহড়া। কিন্তু এদিন সকালে স্কুলে পৌঁছে প্রধান শিক্ষিকা দেখতে পান যে গেটে তালা ঝুলছে। যেখানে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার মঞ্চ হওয়ার কথা ছিল, সেই জায়গাটি ঘিরে ফেলা হয়েছে। স্কুলের বাইরেও বাঁশ পোতা হয়েছে। বাধ্য হয়েই কলকাতা পোর্টের পরিত্যক্ত জায়গায় প্র্যাকটিস শুরু করে পড়ুয়ারা।

[আরও পড়ুন: রাসায়নিক ছড়িয়ে কেপমারি, ব্যবসায়ীকে বেহুঁশ করে টাকা-গয়না লুটে চম্পট দিল মহিলা

সংবাদ মাধ্যমের তরফে অভিযুক্ত কাউন্সিলরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন যে, “স্কুলের দায়িত্বে রয়েছে কমিটি। সেই কমিটির সদস্য আমি। তাই স্কুলের ভবন প্রয়োজনে ব্যবহার করার অধিকার রয়েছে আমার।” কাউন্সিলরের এহেন মন্তব্যকে কেন্দ্র করে দানা বাঁধে বিতর্ক। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই স্কুলে হাজির হন প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের সদস্যরা। দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর বৃহস্পতিবার নির্দিষ্ট সময়ের স্কুলের প্রাঙ্গনে ভিড় জমায় পড়ুয়ারা। শুরু হয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। নতুন করে যাতে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় সেই কারণে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। ঘটনাটি খতিয়ে দেখায় আশ্বাস দিয়েছেন স্কুলের চেয়ারম্যান। 

An Images
An Images
An Images An Images