৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিঁথি, মানিকতলা, বেলেঘাটার পর, কাটমানি কাণ্ডে এবার পোস্টার পড়ল মধ্য কলকাতার সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যার ও বিধাননগরে৷ সূত্রের খবর, দুটি জায়গাতেই তৃণমূল কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাউন্সিলররা।

[ আরও পড়ুন: বিয়ের আগে পথ দুর্ঘটনায় প্রেমিকের মৃৃত্যু, শোকে আত্মঘাতী যুবতী]

জানা গিয়েছে, বুধবার সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের দু’টি গেটে এলাকার নাগরিকবৃন্দের নামে পোস্টার পড়ে। যেখানে অভিযোগ করা হয়েছে, কলকাতা কর্পোরেশনের ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মৌসুমী দে কাটমানি কাণ্ডে অভিযুক্ত। তাঁর কাছে অবিলম্বে টাকা ফেরত চাওয়া হয়েছে। যদিও বুধবার বেলা গড়াতেই সন্তোষ মিত্র স্কোয়ার থেকে ওই পোস্টারগুলি উধাও হয়ে যায়। কাউন্সিলরের দাবি, বিরোধীরা কিছুটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে মিথ্যা অভিযোগ করছে। গোটা বিষয়টি দলকে জানানো হয়েছে। একই অভিযোগ উঠেছে বিধাননগর পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রীতা সাহার বিরুদ্ধে৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, বাগুইআটি অর্জুনপুরে একটি সেতু নির্মাণের জন্য কাটমানি তুলেছেন কাউন্সিলর। এইমর্মে এলাকায় পোস্টারও দিয়েছেন তাঁরা। বুধবার সকালে অর্জুনপুরের ওই সেতুর সামনে দফায় দফায় বিক্ষোভও দেখিয়েছেন স্থানীয়রা। যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে রীতা সাহা বলেন, “আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। টাকা নিয়েছি, এমন প্রমাণ দেখাতে পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেব।”

[ আরও পড়ুন: খুদেকে ভুল টিকা দেওয়ার জের, আলিপুরদুয়ারে বদলি করা হল ডাফরিনের নার্সকে ]

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগেই কাটমানি তিরে বিদ্ধ হন কলকাতা কর্পোরেশনের ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর জীবন সাহা৷ তাঁর বিরুদ্ধে, বিভিন্ন ভাবে এলাকার সাধারণ মানুষের কাছে থেকে টাকা তোলার এবং জলাজমি ভরাটের অভিযোগ ওঠে৷ ১৩ দফা অভিযোগে ফ্লেক্সও লাগানো হয়৷ যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন কাউন্সিলর তথা উত্তর কলকাতা যুব তৃণমূলের সভাপতি জীবন সাহা৷ তার আগে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেনের বিরুদ্ধে৷ তাঁর বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ করেন উত্তর কলকাতার সিঁথি এলাকার প্রমোটার সুমন্ত্র চৌধুরি। একই অভিযোগ উঠেছে, কলকাতা কর্পোরেশনের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অমল চক্রবর্তী ও বিধায়ক সাধন পাণ্ডের বিরুদ্ধেও৷ উত্তর কলকাতায় উল্টোডাঙার মুরারিপুকুর এলাকায় বেশ কয়েকটি পোস্টারে তাঁদের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ করে বিজেপি৷

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং