BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রসবের পরই করোনা পজিটিভ মা, আতঙ্কে খালি কলকাতা মেডিক্যালের ইডেন বিল্ডিং

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 13, 2020 2:42 pm|    Updated: April 13, 2020 2:46 pm

Women tested corona positive after giving birth at Kolkata Hospital

গৌতম ব্রহ্ম: প্রসবের পরই মায়ের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস। যার জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইডেন বিল্ডিংয়ে। বন্ধ করে দেওয়া হয় বিল্ডিংটি। সেখানকার রোগীদের NRS, আরজি কর, এসএসকেএম হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে বিশেষ নোট পাঠানো হয়েছে যে এঁদের সকলকে যেন আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা করা হয়। এ রাজ্যে এই ঘটনা প্রথম যেখানে প্রসবের পরই মা করোনায় আক্রান্ত হলেন। এই ঘটনার পর গোটা হাসপাতালে Fumigation হবে বলে খবর।

COVID হাসপাতাল তৈরির প্রস্তুতির জন্য এমনিতেই খালি করে দেওয়া হয়েছিল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল। শুধুমাত্র ইডেন বিল্ডিংয়েই জনা কয়েক প্রসূতিকে রেখে চিকিৎসা চলছিল। শুক্রবার অপারেশন থিয়েটারে একজনের ডেলিভারি করা হয়। এরপর সদ্য প্রসূতির শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। তাঁর লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষা করতে পাঠানো হয়েছিল। রবিবার রাতে আসা রিপোর্টে দেখা যায়, তিনি করোনা পজিটিভ।

[আরও পড়ুন: সাতসকালে বালিগঞ্জের মাল্টিপ্লেক্সে দাউদাউ আগুন, আড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে]

এরপর সোমবার সকালেই ইডেন বিল্ডিংয়ের অন্যান্য প্রসূতিদের স্থানান্তরিত করার কাজ শুরু হয়। শহরেরই অন্যান্য সরকারি হাসপাতালগুলিতে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সঙ্গে হাসপাতালের তরফে বিশেষ নোট দেওয়া হয়েছে যাতে তাঁদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়। মায়ের থেকে কোনওভাবে সদ্যোজাতর শরীরে ভাইরাস সংক্রমণ হয়েছে কি না, তা বুঝতে সোয়াব টেস্টের জন্য পাঠানো হয়েছে বাচ্চাটির লালারসও।

তবে আশঙ্কা দানা বাঁধছে অন্যত্র। করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় ইডেন বিল্ডিংয়ে ভরতি থাকা রোগীদের এমনিতে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা করা হচ্ছিল। তাই ওয়ার্ড থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা কম। তবে অপারেশন থিয়েটার তো একটাই। তাই একই OT-তে অনেকেরই ডেলিভারি হয়েছে। ফলে এই মহিলার থেকে তাঁদের শরীরেও সংক্রমণ ছড়িয়েছে কি না, সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

[আরও পড়ুন: ‘রাজভবনের সঙ্গে লকডাউনে ইতি টানুন’, মমতাকে কটাক্ষ ধনকড়ের]

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের সুপার ডা. ইন্দ্রনীল বিশ্বাস বলেন, “যাঁরা আছেন এখানে, তাঁরা সকলেই COVID-19 পজিটিভ হবে ভেবে তাঁদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিল। তবে OT তো একটাই। প্রত্যেকবার ডেলিভারির পর আমরা স্যানিটাইজ করে তবেই পরবর্তী অপারেশন করেছি। তা সত্ত্বেও আশঙ্কা থাকছে। গোটা হাসপাতাল খালি করে দেওয়া হচ্ছে।Fumigation করা হবে।” প্রসূতিদের সকলকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। বিশেষ নজর রাখা হয়েছে সদ্যোজাতদের উপরও।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে