BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

গুজব রুখতে বিশেষ পদক্ষেপ কেন্দ্রর, প্রশ্নের উত্তর দিতে চালু হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 20, 2020 12:35 pm|    Updated: March 20, 2020 12:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বব্যাপী মহামারির আকার ধারণ করেছে করোনা। এই মারণ ভাইরাস থেকে জনসাধারণ সুরক্ষিত থাকার চেষ্টা করছেন ঠিকই, কিন্তু আতঙ্কও পিছু ছাড়ছে না। ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের মতো সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত ছড়িয়ে পড়ছে বেশ কিছু ভুয়ো খবর ও গুজব। যা থেকে ভয় আরও বাড়ছে। এই ভুল খবর রুখতেই এবার বিশেষ পদক্ষেপ করল ভারত সরকার। COVID-19 নিয়ে মানুষকে সচেতন করতে চালু হল হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবট।

করোনার সংক্রমণ রুখতে ইউরোপের একাধিক দেশে চলছে লক ডাউন। ফ্রান্স, ইটালি, জার্মানির রাস্তা যেন শ্মশান। ভারতে সরকারিভাবে লক ডাউন ঘোষণা করা হয়নি ঠিকই কিন্ত অনেকেই বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন না। বৃহস্পতিবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নাগরিকদের অনুরোধ জানান, সকলে যেন একসঙ্গে হয়ে এক মোকাবিলা করেন। বাড়ির বাইরে না বেরিয়ে যেন সুরক্ষিত ও সচেতন থাকার চেষ্টা করেন। রবিবার জারি করা হয়েছে জনতা কারফিউ। তবে চিকিৎসক মহলের দাবি, দেশে এখনও সমষ্টিগত সংক্রমণ ছড়ায়নি। চরম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। এবার কেন্দ্রের তরফে চালু করা হল নতুন হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর। ভারতের জাতীয় ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি (NPPA) তাদের টুইটার হ্যান্ডে একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর প্রকাশ করেছে। সঙ্গে লেখা, “হোয়াটসঅ্যাপে 9013151515 এই নম্বরটি সেভ করে রাখুন। তাহলেই করোনা সংক্রান্ত সবরকম প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।”

[আরও পড়ুন: করোনা সতর্কতায় বন্ধ স্কুল-কলেজ, পড়ুয়াদের সুবিধায় অনলাইনেই চলছে ক্লাস]

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যাতে অযথা করোনা নিয়ে গুজব ছড়িয়ে না পড়ে সেই জন্যই এই পরিষেবা চালু করা হল। জাতীয় হেল্পলাইন নম্বর +91-11-23978046 এবং টোল ফ্রি নম্বর 1075-য় ফোন করলেও করোনা সংক্রান্ত তথ্য পেয়ে যাবেন জনসাধারণ। এছাড়াও [email protected] – এই ই-মেল আইডিতে মেল করেও নিজেদের কৌতূহল মেটাতে পারবেন সকলে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির জন্যও আলাদা আলাদা নম্বর চালু হয়েছে।

গোটা দেশে ইতিমধ্যেই ২০০-র বেশি মানুষ এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত। মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের। সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত মহারাষ্ট্র। স্বাভাবিক জনজীবনে রাশ টানা হয়েছে আগেই। স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে খবর, পরিস্থিতি সামাল দিতে লক-ডাউনের সিদ্ধান্তও নেওয়া হতে পারে।

[আরও পড়ুন: ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন? হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে এই ৫ বিষয় মাথায় রাখুন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement