BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ 

Advertisement

ফেসবুকে ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রান্ত ভুয়ো তথ্য, খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার উদ্যোগ কর্তৃপক্ষের

Published by: Sayani Sen |    Posted: February 1, 2020 4:14 pm|    Updated: February 1, 2020 4:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসে ক্রমশই বাড়ছে প্রাণহানি। চিনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫৯ জন। মারণ চিনা ভাইরাস সংক্রমণের আতঙ্কে ত্রস্ত ভারত। এই পরিস্থিতিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের দাবি, ক্রমশই ছড়াচ্ছে ভুয়ো তথ্য। যা বিভ্রান্ত করছে সাধারণ মানুষকে। তাই এবার করোনা সংক্রান্ত তথ্য যাচাইয়ের কাজ শুরু করল ফেসবুক। প্রয়োজনে ভুয়ো তথ্য মুছে ফেলার সিদ্ধান্ত সোশ্যাল মিডিয়া কর্তৃপক্ষের।

গ্লোবাল হেলথ অর্গানাইজেশন এবং লোকাল হেলথ অথরিটিসের সঙ্গে আলোচনা হয় ফেসবুকের হেড অফ হেলথ ক্যাং শিং জিনের। বর্তমানে করোনা ভাইরাস নিয়ে নানা তথ্য ফেসবুকে ঘুরে বেড়াচ্ছে। মারণ রোগ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে থাকা তথ্য সাধারণ মানুষের ভাবনা বাড়াচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে ফেসবুকে এক শ্রেণির মানুষ করোনা ভাইরাসের উপসর্গ, প্রতিরোধের উপায় এবং সুস্থ হয়ে ওঠার পদ্ধতি নিয়ে নানা তথ্য ছড়িয়ে দিচ্ছেন বেশিরভাগ মানুষ। অনেক ক্ষেত্রেই বহু মানুষ সত্যাসত্য বিচার না করেই সেই তথ্য বিশ্বাস করতে শুরু করছেন। আবার কেউ কেউ এই তথ্যের মাধ্যমে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। ভুয়ো তথ্য যাতে কোনওভাবেই সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করতে না পারে, সেই উদ্যোগ নিতে চলছে ফেসবুক। করনো ভাইরাস সংক্রান্ত যে সমস্ত তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে সেগুলি খতিয়ে দেখার কাজ শুরু হয়েছে। ভুয়ো তথ্য হলে তা মুছেও দেওয়া হতে পারে। পাশাপাশি ইনস্টাগ্রামও নিতে পারে একই ব্যবস্থা। করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত ভুয়ো তথ্য ছড়ালে সেই ব্যক্তির অ্যাকাউন্টও চিরতরে ব্লক করে দেওয়া হতে পারে। টুইটারও প্রকাশিত তথ্য যাচাইয়ের উদ্যোগ নিচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ফের বিপাকে ইনস্টাগ্রাম, ফাঁস হাজার হাজার ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য]

চিনে করোনা ভাইরাস মহামারির আকার ধারণ করার পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) গোটা বিশ্বজুড়ে জনস্বাস্থ্যে জরুরি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আমেরিকায় ইতিমধ্যেই জারি হয়েছে লাল সতর্কতা। আবার কেনিয়া সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আপাতত চিনে কোনও বিমান পাঠানো হবে না। একই পথে হেঁটেছে ইতালি, ইজরায়েল, উত্তর কোরিয়াও। আর টেক জায়েন্ট অ‌্যাপল, গুগল এবং মাইক্রোসফটের তরফে আপাতত চিনের ভাইরাস আক্রান্ত অঞ্চলে সংস্থার কাজকর্ম বন্ধ রাখা হয়েছে। আবার রাশিয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে চিনের সঙ্গে তাদের দেশের পূর্বাংশে অবস্থিত ৪,৩০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্ত বন্ধ রাখবে। চিনে একের পর মৃত্যুর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক যে ক্রমশ বাড়ছে তা বলাই যায়। তাই সাধারণ মানুষের বিভ্রান্তি কমাতেই নয়া উদ্যোগ ফেসবুক কর্তৃপক্ষের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement