BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কাশ্মীরি যুবকদের দলে টানবে জঙ্গিরা, আশঙ্কায় সেপ্টেম্বরেও ভূস্বর্গে ফিরছে না 4G ইন্টারনেট

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 9, 2020 9:17 am|    Updated: September 9, 2020 10:34 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আশ্বাসই সার। সেপ্টেম্বরেও কাশ্মীরের (Kashmir) সর্বত্র চালু হল না ফোর জি (4G) ইন্টারনেট পরিষেবা। নয়া বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভূস্বর্গে টুজি (2G) স্পিডেই চলবে ইন্টারনেট (Internet)। ব্যতিক্রম জম্মু ও কাশ্মীরের একটি করে জেলা।

মঙ্গলবার রাতে জারি করা সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জঙ্গিগোষ্ঠীগুলি (Terrorists) কাশ্মীরের যুব সম্প্রদায়ের মগজধোলাই করতে চাইছে বলে গোয়েন্দা সংস্থাগুলির কাছে নিশ্চিত খবর আছে । ভূস্বর্গে নাশকতামূলক কার্যকলাপে কাশ্মীরের যুব সম্প্রদায়কে ব্যবহার করতে চাইছে। এমন পরিস্থিতিতে কাশ্মীরে হাইস্পিড ইন্টারনেট চালু হলে তার ভুল ব্যবহার করা হবে। এই যুক্তি দেখিয়েই আপাতত কাশ্মীরের সর্বত্র হাইস্পিড ইন্টারনেট চালু করতে সায় দিল না প্রশাসন। বদলে, কাশ্মীরের গান্ডেরওয়াল ও জম্মুর উধমপুর জেলায় হাইস্পিড ইন্টারনেট পরিষেবার মেয়াদ ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হল। প্রসঙ্গত, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ১৬ আগস্ট থেকে দুই জেলায় হাইস্পিড ইন্টারনেট চালু করা হয়েছিল।

[আরও পড়ুন : ২১ সেপ্টেম্বর শুরু স্কুলের আংশিক পঠনপাঠন, জেনে নিন কোন কোন নিয়ম বাধ্যতামূলক]

২০১৯ সালের ৫ আগস্ট সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৩৭০ (Article 370) বিলোপের মাধ্যমে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করা হয়। সেই সময় থেকেই অশান্তি এড়াতে ভূস্বর্গে 4G ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। দীর্ঘদিন মোবাইল ফোন পরিষেবাও বন্ধ রাখা হয়েছিল। বর্তমানে বিভিন্ন নিয়মকানুন মেনে 2G পরিষেবা মেলে। কেন্দ্রের এহেন সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল বেসরকারি সংস্থা ফাউন্ডেশন ফর মিডিয়া প্রফেশনাল। তাঁদের আবেদনের ভিত্তিতে দফায়-দফায় শুনানি চলছিল। সেই মামলার শুনানিতেই 4G পরিষেবা চালুর কথা জানান অ্যাটর্নি জেনারেল।

[আরও পড়ুন : হাতে বল্লম পিঠে বন্দুক, মধ্যযুগীয় কায়দায় লাদাখে হানা চিনা বাহিনীর]

১৬ আগস্ট থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের দুই জেলায় পরীক্ষামূলকভাবে 4G পরিষেবা চালু হয়। ধাপে ধাপে দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সর্বত্রই হাই স্পিড মোবাইল ইন্টারনেট চালুর আশ্বাস দিয়েছিল কেন্দ্র। কিন্তু সেপ্টেম্বরেও তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। এদিকে মোবাইল ইন্টারনেট স্পিড কম থাকায় গত এক বছরে বিভিন্ন ব্যবসার বিপুল ক্ষতি হয়েছে।  সেই ক্ষতির বহর আরও বাড়বে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement