BREAKING NEWS

১১ কার্তিক  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মাদকের মতো নেশা, আইনজীবীর আবেদনে ফের ভারতে নিষিদ্ধ হতে পারে PUBG

Published by: Sulaya Singha |    Posted: January 24, 2020 1:34 pm|    Updated: January 24, 2020 1:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তেজনা ও হিংসা ছড়াচ্ছে PUBG। নেশাতুঁর হয়ে পড়ছে নবপ্রজন্ম। ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনা থেকে মন উঠে গিয়েছে। এসব অভিযোগ তুলেই এদেশের একাধিক রাজ্যে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল PUBG-কে। সেই ঘটনারই পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে। কারণ শোনা যাচ্ছে, ফের PUBG-র উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হতে পারে।

এই মোবাইল গেমে আসক্ত যুবপ্রজন্মের একটা বড় অংশ। অনলাইন এই ভিডিও গেমটির পিছনে ঘণ্টার পর ঘণ্টায় কাটিয়ে দেন প্লেয়াররা। এমনকী বিয়ের আসরে কনেকে ছেড়ে রবেব PUBG-র নেশাও একসময় শিরোনামে উঠে এসেছে। PUBG-র নেশা একাধিক প্রাণও কেড়েছে। একে সমূলে দূর করার চেষ্টা করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ফেল চাপুটে ব্যাটিং করে এই গেম। কিন্তু ফের বিপাকে PUBG। সম্প্রতি পাঞ্জাবের আইনজীবী এইচসি আরোকা PUBG মোবাইলের বিরুদ্ধে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাই কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন। তাঁর দাবি, অবিলম্বে পাঞ্জাবে নিষিদ্ধ করা হোক এই গেম। আবেদনে বলা হয়েছে, “স্কুল পড়ুয়ারা PUBG-র প্রতি এতটাই আসক্ত হয়ে পড়ছে যে তারা স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিচ্ছে। এই সমস্ত বাচ্চাদের অভিভাবকরাও অসহায় বোধ করছেন। PUBG খেলার জন্য সন্তানদের বকাবকি করলে তারা ক্ষুব্ধ হচ্ছে। অনেকে আবার ডিপ্রেশনে ভুগছে।”

[আরও পড়ুন: পেটিএম-গুগল পে’র সঙ্গে টক্কর, অনলাইন পেমেন্ট পরিষেবা চালু করল জিও]

এখানেই শেষ নয়, এই মোবাইল গেমকে মাদকের নেশার সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি। আইনজীবীর দাবি, PUBG মানুষকে শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ করে দিচ্ছে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে হাই কোর্ট ইতিমধ্যেই বিষয়টি কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রককে (MeitY) জানিয়েছে। যে মর্মে আইনজীবীকে একটি চিঠি পাঠিয়েছে মন্ত্রক। জানানো হয়েছে, তাঁর আবেদন বিবেচনা করে PUBG মোবাইলকে নিষিদ্ধ করার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত বছর গুজরাজ ও চেন্নাইয়ের একাধিক জেলায় নিষিদ্ধ করা হয়েছিল PUBG মোবাইল। যদিও পরে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলেও নেওয়া হয়েছিল। PUBG খেলায় কোপ পড়েছিল নেপাল এবং চিনেও। এবার দেখার আইনজীবীর আবেদনে পাঞ্জাবে এই গেমকে বন্ধ করা হয় কি না।

[আরও পড়ুন: এই টুরিজম ওয়েবসাইট থেকে টিকিট কেটেছেন? সর্বনাশ! সতর্ক করছে IRCTC]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement