১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্তমান প্রজন্মের কাছে গুগল একপ্রকার ঈশ্বর হয়ে উঠেছে। তার কাছে হাত পাতলে কখনও নিরাশ হতে হয় না। শুধু বর্তমান প্রজন্ম কেন, আট থেকে আশি- প্রত্যেকেই গুগল থেকে যখন যা চান, তাই পান। তা সে কোনও বিল্ডিংয়ের ঠিকানা হোক বা সোনার মূল্য। দুনিয়ার সমস্ত বিষয়ের খুঁটিনাটি এক ক্লিকেই চোখের সামনে তুলে ধরে এই সার্চ ইঞ্জিন। কিন্তু এবার একটি শব্দ লিখে গুগলে সার্চ করলে আর পাওয়া যাবে না। না, প্রতিবেদক নয়। একথা জানিয়ে দিয়েছে খোদ গুগল।

তা ঠিক কী জানিয়েছে গুগল? সংস্থার তরফে বলা হয়েছে, আগামী বছর থেকে ফ্ল্যাশ কনটেন্ট খুঁজলে আর পাওয়া যাবে না। কারণ ২০২০ সালেই এই মাল্টিমিডিয়া সফটওয়্যার প্ল্যাটফর্মকে বিদায় জানাবে ইন্টারনেট। ধরুন কোনও ওয়েব পেজে যদি ফ্ল্যাশ কনটেন্ট থাকে, তাহলে গুগল তা এড়িয়ে যাবে। অর্থাৎ আপনার স্ক্রিনে সেই সংক্রান্ত কোনও তথ্যই দেখাবে না। আলাদাভাবে এস ডব্লিউ এফ ফাইল সূচি অনুযায়ী সংরক্ষিত রাখাও বন্ধ করে দেবে গুগল। এই কোম্পানির ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানেজার ডং-হুই লি সোমবার একটি ব্লগে জানান, ২০১৩ সালে ৫০০ মিলিয়ন বার ফ্ল্যাশ রানটাইম ইনস্টল হয়েছে। তাঁর কথায়, “দুর্দান্ত সমস্ত অ্যানিমেশন, মিডিয়া এবং অ্যাকশনের মাধ্যমে ওয়েব পেজকে বেশ চমকপ্রদ এবং মজাদার করে তুলত ফ্ল্যাশ। যাতে কোনওভাবেই সেই ওয়েবকে একঘেয়ে না দেখতে লাগে। এটি একটি উন্নতমানের প্রযুক্তি ছিল, যা অন্যান্য কনটেন্ট প্রস্তুতকারীদের অনুপ্রেরণা দিত। প্রায় সব জায়গাতেই চোখে পড়ত ফ্ল্যাশ।”

[আরও পড়ুন: অতিরিক্ত ডেটা খরচ করেন? ব্যবহার করুন ভোডাফোন-এয়ারটেলের এই প্ল্যানগুলি]

২০১৭ সালের গোড়ার দিকে অ্যাডোব জানিয়ে দেয় এই প্রযুক্তি তারা আর সাপোর্ট করবে না। তারপরই গুগলের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, ২০২০ সালের মধ্যে ক্রোম ব্রাউজার থেকে ফ্ল্যাশ সম্পূর্ণভাবে সরিয়ে দেবে তারা। ৭৬ ক্রোম ভার্সান থেকে ইতিমধ্যেই ফ্ল্যাশ সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: দুর্দান্ত অফার, মাত্র ১০১ টাকায় বাড়ি নিয়ে যান Vivo’র স্মার্টফোন]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং