২ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একটা সময় ছিল, যখন ভগ্ন স্বাস্থ্য উদ্ধার করতে বাঙালি ছুটে যেত শান্ত-সুন্দর গালুডিতে৷ আজ মানুষের সংখ্যা বেড়েছে৷ কিন্তু ভ্রমণপ্রিয় বাঙালির আজও হাওয়া বদলের টান রয়েই গেছে৷ তাই ঝাড়খণ্ডের এই পাহাড়-জঙ্গলের মিলন আজও আকর্ষণ করে বাঙালির যাযাবর মনকে৷

38

কী দেখবেন –

  • এই গালুডির শোভায় মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর বহু সৃষ্টিতে উঠে এসেছে প্রকৃতির এই রূপকথা৷
  • সামনেই এঁকেবেঁকে চলে গিয়েছে লাস্যময়ী সুবর্ণরেখা নদী৷
  • নদীর তীরেই রয়েছে রাতমোহনার মোহময়ী রূপ৷ যা ঝলসে ওঠে সূর্যের উদয়-অস্তের সঙ্গে৷
  • শাল-পিয়ালে ঘেরা প্রকৃতির এই ডেরায় শোভা পায় মানুষের তৈরি গালুডি বাঁধ৷
  • মাত্র সাত কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ধারাগিরি জলপ্রপাত৷
  • ইতিহাসের সাক্ষী হতে চাইলে দেখে আসতে পারেন ধলভূম রাজবাড়ির প্রাচীন মন্দির৷

04

কীভাবে যাবেন –

গাড়িতে করে গেলে ৩৩ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে খড়গপুর হয়ে পৌঁছতে হবে গালুডি৷ ট্রেনে গেলে হাওড়া থেকে ইস্পাত এক্সপ্রেস ধরে নামতে পারেন ঘাটশিলা৷ সেখান থেকে গাড়ি ভাড়া করে কিংবা অটো রিক্সায় চেপে পৌঁছান যায় গালুডি৷

কোথায় থাকবেন –

গালুডি ও ঘাটশিলা, দুই জায়গাতেই হোটেল, রিসর্ট যথেষ্ট পরিমানে রয়েছে৷ আগে থেকে বুকিং করে যাওয়াই ভাল৷

stock-photo-20565015

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং