BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

OMG! দেশের বুকে রয়েছে এমন অদ্ভুত মন্দিরও!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 7, 2018 8:32 pm|    Updated: July 8, 2018 12:38 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৩৩ কোটি দেবতার আরাধনা হয় এ দেশে৷ কোনও মন্দিরে পূজিত হন মহাদেব তো কোথাও স্থান পান দেবী দুর্গা৷ কিন্তু আরও একটু গভীরে গেলে দেখা যাবে সংখ্যাটা ৩৩ কোটি কিন্তু নয়৷ আরও বেশি৷ আর তার মধ্যে অনেক মন্দিরেই জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে হাজির হন ভক্তরা৷ যেখানে দেবতার রূপও অবাক করে সাধারণকে৷ সেসব মন্দিরের নামগুলি শুনলে অবাক লাগতেও পারে৷ ভারতবর্ষের বৈচিত্র্যের সবটুকু আর জানা হয়ে ওঠে কোথায়? এই প্রতিবেদনে তুলে ধরা হল তেমনই কিছু অচেনা মন্দিরের কাহিনি৷

সোনিয়া গান্ধী মন্দির, তেলেঙ্গানা:
প্রথমবার জানলেন কি? তবে শুনুন৷ প্রাক্তন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর নামে আস্ত একটি মন্দির রয়েছে এই দেশে৷ তেলেঙ্গানার মাল্লিয়াল শহরে রয়েছে মন্দিরটি৷ অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে তেলেঙ্গানাকে আলাদা করে তাকে নতুন একটি রাজ্যে পরিণত করার জন্য সোনিয়া গান্ধীর কাছে কৃতত্ব তেলেঙ্গানাবাসী৷ আর সেই কারণেই প্রাক্তন সভানেত্রীর নামে মন্দিরটি তৈরি করেছিলেন স্থানীয়রা৷ যেখানে সোনিয়া গান্ধীর একটি পূর্ণাঙ্গ মূর্তিও রয়েছে৷

[পুজোর বুকিং শুরু হতেই পাহাড়গামী ট্রেনের কনফার্মড টিকিট শেষ]

শহিদ বাবা নিহাল সিং গুরুদ্বার, জলন্ধর:
বাইরে থেকে এ গুরুদ্বার শিখদের আর পাঁচটা ধর্মস্থানের মতোই। কিন্তু এখানে প্রার্থনা ধরনটা এক্কেবারে অন্যরকম। এখানে যাঁরা আসেন তাঁদের হাতে থাকে একটি করে খেলনা এরোপ্লেন। কেন? কারণ তাঁদের বিশ্বাস এই বিমানে চেপেই তাঁদের প্রার্থনা পৌঁছে যাবে ঈশ্বরের কাছে। এবং নিজেদের সব প্রশ্নের ও প্রার্থনার উত্তর পাবেন তাঁরা।

ভারতমাতা মন্দির, বারাণসী:
এ মন্দির প্রতিষ্ঠিত ১৯৩৬ সালে৷ অর্থাৎ দেশভাগের আগে৷ তবে এখানে কোনও দেবতা নয়, পুজো হয় ভারতমাতার৷ মন্দিরের মেঝেতে মার্বেল দিয়ে বিরাট আকারে অখণ্ড ভারতের মানচিত্র খোদাই করা আছে৷ যা পর্যটকদের অন্যতম দর্শনীয় স্থান হয়ে দাঁড়িয়েছে৷

সারমেয়দের মন্দির, কর্ণাটক:
কথায় বলে, কুকুরের মতো বন্ধু দ্বিতীয় হয় না৷ আর যাঁর প্রতি বিশ্বাস ও আস্থা থাকে, তাকেই তো দেবতার আসনে বসানো যায়৷ এই রাজ্যের রামনগর জেলায় তাই সেই সারমেয়দের জন্যই তৈরি হয়েছে একটি মন্দির৷ যেখানে সারমেয়দের মূর্তিতে রীতিমতো ফুল-মালা দিয়ে পুজো করা হয়৷

অমিতাভ বচ্চন মন্দির, কলকাতা:
মানুষ রূপে জন্মেও কার্যফলে দেবতা হয়ে ওঠা সম্ভব৷ যেমন হতে পেরেছেন অমিতাভ বচ্চন৷ এ দেশের বহু স্থানেই তাঁকে দেবতার আসনে বসিয়ে পুজো করা হয়৷ তবে কলকাতার বাসিন্দা সঞ্জয় পাতোদিয়া বিগ বি-কে ভালবেসে আস্ত একটি মন্দিরই বানিয়ে ফেলেছেন বালিগঞ্জে৷ প্রথমে মন্দিরে ছিল একটি মুকুট ও এক জোড়া জুতো, যা অগ্নিপথ ছবিতে পরেছিলেন বিগ বি৷ গত বছর এ মন্দিরে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে অভিনেতার একটি মূর্তিও৷ অমিতাভ বচ্চন ফ্যান ক্লাবের উদ্যোগেই ২৫ কেজির মূর্তিটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে৷

[পর্যটকদের জন্য সুখবর, জঙ্গলের রূপ তুলে ধরতে বর্ষায় ‘মনসুন টুরিজম’]

শচীন মন্দির, বিহার:
গুগল সার্চ ইঞ্জিনে গড অফ ক্রিকেট লিখে সার্চ করলে জ্বলজ্বল করে শচীন তেণ্ডুলকরের নামটি৷ গোটা বিশ্ব যাঁকে ক্রিকেট ঈশ্বর বলে মানে, নিজের দেশে তাঁর একটা মন্দির থাকবে না, এও কি সম্ভব? এক্কেবারে নয়৷ তাই তো বিহারের আতরওয়ালিয়ায় তৈরি হয়েছে মাস্টার ব্লাস্টারের একটি মন্দির৷ তাঁর মূর্তিকে দেবতার মতোই পুজো করেন অনুগামীরা৷

ওম বন্না মন্দির, যোধপুর:
আন্দাজ করতে পারেন এখানে কে পূজিত হন? ৩৫০ সিসি রয়্যাল এনফিল্ড বুলেট৷ বিশ্বাস নাহলে আবার পড়ুন৷ কারণ যোধপুরের পালির এই মন্দিরে মোটরবাইককেই ফুল-চন্দন দিয়ে পুজো করা হয়৷ উদ্দেশ্য একটাই৷ আত্মীয়-পরিজনের শুভযাত্রা কামনা করেই এখানে পুজো দেন ভক্তরা৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement