৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আয়াপ্পার টানে ৪৮০ কিলোমিটার হেঁটে শবরীমালা যাচ্ছে কুকুর! ভাইরাল ভিডিও

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 19, 2019 3:53 pm|    Updated: November 19, 2019 3:53 pm

Stray dog walks over 480kms with 13 devotees to Sabarimala

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহাভারতের শেষলগ্নে পাণ্ডবরা মহাপ্রস্থানের পথে যাচ্ছিলেন। তখন তাঁদের পিছু নিয়েছিল কালো রঙের একটি কুকুর। যাত্রাপথে একে একে যুধিষ্ঠির বাদে বাকি পাণ্ডবদের মৃত্যু হয়। শেষ পর্যন্ত দেখা যায় যুধিষ্ঠিরের সঙ্গে পথ হাঁটছে একমাত্র ওই কুকুরটি। স্বর্গে প্রবেশের আগে যুধিষ্ঠির জানতে পারেন ওই সারমেয়টি আসলে ধর্ম। তাঁকে সঙ্গ দিতেই এতটা পথ পাড়ি দিয়েছে সে। মহাভারতের মহাপ্রস্থানের সেই গল্প সত্যি কিনা তা নিয়ে বিতর্ক আছে। কিন্তু, এই ঘোর কলিকালেও প্রায় একই ধরনের ঘটনা ঘটল দক্ষিণ ভারতে। সুদূর অন্ধ্রপ্রদেশের তিরুমালা থেকে ৪৮০ কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিয়ে কেরলের শবরীমালা মন্দিরের দিকে যেতে দেখা গেল একটি পথের কুকুরকে। এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হতেই ভাইরাল হয়েছে তা।

[আরও পড়ুন: জ্বলজ্বল করছে চোখের মণি, সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল শিশুর অদ্ভুতুড়ে ছবি]

অন্ধ্রপ্রদেশের সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৩১ অক্টোবর অন্ধ্রপ্রদেশের তিরুমালা থেকে কেরলের শবরীমালা মন্দিরের উদ্দেশে পায়ে হেঁটে রওনা দেয় ১৩ জন ভক্তের একটি দল। গত ১৭ নভেম্বর কর্ণাটকের চিক্কামাগালুরু জেলার কোট্টিগেহেরা এলাকায় পৌঁছয় তারা। আর তখনই চোখে পড়ে তাঁদের পিছু নিয়েছে গলায় বগলস লাগানো একটি হলুদ রঙের কুকুর। চুপচাপ কোনও শব্দ না করেই ওই ভক্তদের সঙ্গে শবরীমালা মন্দির যাচ্ছে সে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কালো পোশাক পরে খালি পায়ে কয়েকজন ভক্ত রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন। আর তাঁদের কিছুটা পিছনে আসছে একটি কুকুর। যা দেখে অভিভূত হয়ে পড়েছেন নেটিজেনরা। সোমবার ভিডিওটি পোস্ট হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত ৭১ হাজারের বেশি মানুষ এটি দেখেছেন। আর পছন্দ করেছেন ১০ হাজারের বেশি মানুষ। আর প্রায় সবাই প্রশংসা করেছেন ওই সারমেয়টির। পাশাপাশি এই ভিডিও হৃদয় ছুঁয়ে গিয়েছে বলেও উল্লেখ করেছেন তাঁরা। অনেকে আবার বলছেন, ঘটনাটি অবিশ্বাস্য।

[আরও পড়ুন: ৯ বছর বয়সে বিশ্বের কনিষ্ঠতম স্নাতক হচ্ছে বেলজিয়ামের লরেন্ট]

এপ্রসঙ্গে ভক্তদের দলে থাকা এক ব্যক্তি বলেন, ‘আমরা প্রথমে কুকুরটাকে লক্ষ্য করিনি। পরে যখন চোখে পড়ে তখন সবাই হতবাক হয়ে যায়। গোটা রাস্তাটাই আমাদের পিছু পিছু এসেছে ও। পথে আমরা যা খেয়েছি কুকুরটাকেও তাই খাইয়েছি। প্রতিবছরই আমরা শবরীমালা মন্দিরে যাই। কিন্তু, কোনও বছরই এই ধরনের ঘটনা ঘটেনি। এটা আমাদের কাছে সত্যি এক নতুন ও অদ্ভুত অভিজ্ঞতা।’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে