২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের পর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধেও কি ‘বলিদান ব্যাজ’ চিহ্ন-যুক্ত গ্লাভসটি পরেই মাঠে নামবেন মহেন্দ্র সিং ধোনি? সেদিকেই নজর ছিল গোটা বিশ্বের। ক্রিকেটপ্রেমীদের কৌতূহল ছিল তুঙ্গে। রবিবাসরীয় ওভালে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের শুরু থেকেই ধোনির গ্লাভসের দিকে আটকে ছিল প্রত্যেক দর্শকের নজর। শেষমেশ দেখা গেল, নিজের অবস্থান থেকে সরে এসে গ্লাভস বদলে ফেলেছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক।

[আরও পড়ুন: ভারত-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ দেখতে ছেলের সঙ্গে ওভালে হাজির বিজয় মালিয়া]

শনিবারই সাংবাদিক সম্মেলনে টিম ইন্ডিয়ার সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, আইসিসি-র নির্দেশ মেনে ধোনি কি গ্লাভস বদলে ফেলবেন? সরাসরি উত্তর না দিয়ে রোহিত জানিয়েছিলেন, তা জানতে রবিবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আর এদিন ভারতীয় দল ফিল্ডিংয়ে নামতেই ছবিটা পরিষ্কার হল। বদলে গিয়েছে মাহির গ্লাভস। সেখানে আর জ্বলজ্বল করছে না বলিদান চিহ্ন অর্থাৎ Regimental Insignia। বলাই যায়, আইসিসি’র চাপের কাছে একপ্রকার মাথা নতই করে নিল ভারত। আসলে ধোনি বরাবরই বিতর্ক থেকে দূরে থাকতে পছন্দ করেন। আর যেখানে সেনাদের সম্মান জানানোর পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়, সেখানে সেই বিতর্ককে যে তিনি বাড়তে দিতে চান না, ধোনির গ্লাভস বদল থেকেই তা স্পষ্ট।

বিশ্বকাপে ভারতের প্রথম ম্যাচে Regimental Insignia চিহ্ন-যুক্ত গ্লাভস পরে মাঠে নেমেছিলেন ভারতীয় উইকেট কিপার। সেই ছবি ভাইরাল হতেই আইসিসির রোষের মুখে পড়েন ধোনি। আইসিসি-র তরফে বিসিসিআইকে জানানোও হয় যে, মাহি যেন এই গ্লাভস না পরেন। কারণ বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী ক্রিকেটারদের পোশাক এবং কিট, অবশ্যই অনুমোদিত হতে হবে। আইসিসির দাবি, গ্লাভসে এই চিহ্নটি আঁকা মানে রাজনৈতিক বিষয়কে খেলার মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া। যাকে কোনওভাবেই প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না। যদিও প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর থেকে ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার, প্রত্যেকেই গ্লাভস বিতর্কে ধোনির হয়ে সুর চড়িয়েছিলেন। এবিষয়ে ধোনির পাশেই দাঁড়ায় ভারতীয় বোর্ডও। বিসিসিআইয়ের তরফে বলা হয়, ধোনির ওই ব্যাজ কোনওরকম রাজনৈতিক, ধর্মীয় বা বর্ণবিদ্বেষমূলক বার্তার প্রচার করে না। তাছাড়া ধোনির ওই ব্যাজ সেনার লোগো নয়। সুতরাং, আইসিসির এতে আপত্তি থাকার কথা নয়। তা সত্ত্বেও নিজেদের অবস্থানেই অনড় ছিল আইসিসি। কিন্তু শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানানোর পদ্ধতি নিয়ে কোনও বিতর্ক চাননি বলেই ধোনি যে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তেমনটাই ধারণা ক্রিকেট মহলের। তাই তাঁর এই সিদ্ধান্তকেও সম্মান জানাচ্ছেন ভারতীয় সমর্থকরা।

[আরও পড়ুন: টাকার লোভে অবসর নিয়েছিলেন এবি, বিস্ফোরক শোয়েব]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং